খুবিতে আইসিটি আঞ্চলিক বিতর্ক প্রতিযোগিতা

???????????????????????????????

শনিবার (২৩ জানুয়ারি)বিকেল ৫টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ নম্বর একাডেমিক ভবন অডিটরিয়ামে জাতীয় তথ্য প্রযুক্তি বিতর্ক উৎসবের আঞ্চলিক পর্যায়ের বিতর্ক প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা, যশোর, সাতক্ষীরা ও বরগুনা জেলা নিয়ে গঠিত আঞ্চলিক পর্যায়ের এ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ফাইনাল রাউন্ডে ৮টি দল অংশ গ্রহণ করে। এর মধ্যে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় দল চ্যাম্পিয়ন এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় দল রানার আপ হয়।

 

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন আমাদের সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে ও দৃষ্টিভঙ্গি বদলানোর জন্য বেশি করে বিতর্ক চর্চার প্রয়োজন। যুক্তিনির্ভর সমাজ গঠনের মাধ্যমে একটি সুন্দর দেশ গড়ে তোলা সম্ভব। সমাজে যতো বেশি বিতর্ক হবে, ততো যু্িক্ত প্রাধান্য পাবে। ফলে ততো সংঘাত, সংঘর্ষ, গায়ের জোর প্রয়োগ কমে যাবে। তিনি বলেন বিতর্কই একটি সমাজকে বুদ্ধিবৃত্তিক স্তরে নিয়ে যায়। বিতর্কের জন্য যুক্তির অনুসন্ধান করতে হয়। আর এর মাধ্যমে জ্ঞানের নিরন্তর সাধনায় মগ্ন থাকে বিতর্ক চর্চায় যুক্ত যারা।

 

তিনি বলেন যারা বিতর্ক প্রতিযোগিতা করে তাদের মধ্যে এক ধরণের সাহস তৈরি হয়। বিতর্ক নানা যুক্তি ও উদ্ভাবনের পথ তৈরি করে। এর ফলে একটি সমাজ, একটি দেশ এমনকি মানব জাতি উপকৃত হয়। তিনি বিশেষ করে শিক্ষার্থীদেরকে বেশি করে বিতর্ক সংগঠন ও বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের পরামর্শ দিয়ে বলেন শিক্ষা জীবনে এর সুফল অনেক। তিনি আরও বলেন আমাদের দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে বেশি করে বিতর্ক হওয়া প্রয়োজন। বিতর্ক বেশি হলে আমাদের জাতীয় অনেক সমস্যার সমাধান সম্ভব। তিনি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিতর্ক সংগঠন নৈয়ায়িককে বেশি করে বিতর্ক প্রতিযোগিতা আয়োজনের জন্য নির্দেশনা দেন এবং একটি ইনোভেশন ক্লাব গঠন ও শিক্ষার্থীদের ইনোভেটিভ আইডিয়া সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হবে বলে উল্লেখ করেন। পরে তিনি বিজয়ী দল ও রানার আপ দলের অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে পুরস্কার ট্রফি তুলে দেন।

 

এ প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠ বিতার্কিক হন কুয়েটের ছাত্রী রিভু আলম। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ডিবেটিং ফেডারেশন (বিডিএফ) এর খুলনা অঞ্চলের আহবায়ক এনএএম সারোয়ারে আক্তার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নর্থ ওয়েষ্টার্ন ইউনিভার্সিটির ডিন প্রফেসর ড. গাজী আব্দুল্লাহেল বাকী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ মনিরুজ্জামান। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিডিএফ এর সহ-সভাপতি কামরুল হাসান সোহাগ, ক্যাম্পাস টু ক্যারিয়ারের প্রতিনিধি সিনথিয়া হাই। স্বাগত বক্তব্য রাখেন নৈয়ায়িক এর সভাপতি বিএম আফসান আক্তার এ্যানি। অনুষ্ঠানে খুবির ছাত্র বিষয়ক পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) মোহাঃ সাদিকুল আমিনসহ বিভিন্ন জেলার বিতর্কীক ও সংগঠনের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। #

 

 

লেখাপড়া২৪.কম/খুবি/পিআর/আরএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট