ইবিতে পরীক্ষা দিতে এসে প্রক্সিবাজ আটক

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় এক প্রক্সিবাজকে আটক করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ওই প্রক্সিবাজের নাম ইন্দ্রজিত সরকার। আটক প্রক্সিবাজকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

জানা যায়, রোববার এইচ ইউনিটের পরীক্ষায় দিনের বিকাল সাড়ে তিন টা থেকে সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত ৪র্থ শিফটে ড. ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান ভবনের ১২৫ নং কক্ষ থেকে আটক করা হয়। পরীক্ষা দেয়ার সময় ইন্দ্রজিত সরকারের প্রবেশ পত্রে দেয়া রোল নম্বরের সাথে উত্তর পত্রে লেখা রোল নম্বরের অমিল দেখতে পানদায়িত্বরত শিক্ষক। তাকে রোল নং ভিন্ন লেখার বিষয়টি জিজ্ঞাসা করলে সে কোনো সঠিক উত্তর দিতে পারেনি। পরে ওই প্রক্সিবাজকে বিশ্ববিদ্যালয় শৃঙ্খলা কমিটির হাতে তুলে দেয়।

জিজ্ঞাসাবাদ করার পর জানা যায়, ইন্দ্রজিত সরকার সিপনা খাতুন নামে এক পরীক্ষার্থীর হয়ে প্রক্সি দিচ্ছিল। এসময় তার ফাইল থেকে আরো প্রক্সি দেয়ার কাগজ পত্র ও ভুয়া প্রবেশ পত্র উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় তার সঙ্গে বড় একটি জালিয়াত চক্র জড়িত রয়েছে।

ভ্রাম্যমান আদালত তথ্য প্রমানের ভিত্তিতে পাবলিক পরীক্ষা অপরাধ আইন ১৯৮০ এর ৩ নং ধারা মোতাবেক ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন। এ শাস্তির রায় ঘোষনা করেন সহকারী কমিশনার (কুষ্টিয়া ডিসি অফিস) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম কমল।

আটককৃত ইন্দ্রজিত সরকার মাগুরা জেলার শ্রীরামপুর থানার অজিত কুমার বিশ্বাস ও চমৎকার রাণীর ছেলে।
প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান বলেন,-‘ আমরা সকল প্রকার জালিয়াতি বন্ধ করবে সর্বদা সচেষ্ট অবস্থানে আছি। যে প্রক্সিবাজকে আটক করা হয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে । এই জালিয়াতি চক্রে যারা জড়িত আছে তাদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।’

ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রতন শেখ বলেন, ‘দন্ড প্রাপ্ত ইন্দ্রজিৎ আমাদের হেফাজতে রয়েছে। তাকে জেল হাজতে পাঠানোর ব্যবস্থা চলছে।’

পছন্দের আরো পোস্ট