ইস্টার্নে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

ইস্টার্র্ন ইউনিভার্সিটি (ইইউ) এর আয়োজনে ২৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হলো ২০১৭ সালে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। সারা বাংলাদেশ থেকে প্রায় ৮০০ শিক্ষার্থী অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এম.পি এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুর রব এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন ইইউ’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড এর ব্যাবস্থাপনা পরিচালক মো: হাবিবুর রহমান, ইইউ’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য আবুল কাসেম হায়দার, মো: আজিজুল ইসলাম, আবুল খায়ের চৌধুরী, অধ্যাপক ড. এবিএম শহীদুল ইসলাম, শেখ সাইদুর রহমান, আনোয়ার হোসাইন চৌধুরী, মো: আলী আজ্জম প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবুল বাশার খান। এর আগে মন্ত্রী বাংলাদেশের বাছাইকৃত ১০০ কলেজের অধ্যক্ষের সাথে “উচ্চ শিক্ষার মানোন্নয়নে কলেজ অধ্যক্ষের ভূমিকা” শীর্ষক ইইউ’র গোলটেবিল আলোচনায় অংশ নেন।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তৃতায় বলেন, “আজকের শিশু আগামীর ভবিষ্যৎ এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কারিগর”। তাই তাদের সঠিক যত্ন নিতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা ও সুখি-সমৃদ্ধ দেশ গঠনে এই প্রজন্মই হলো মূল হাতিয়ার। বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে সকল বিশ্ববিদ্যালয় ও তরুন প্রজন্মের অগ্রসরতা সফলতার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দিবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস। আর এ বিষয়ে ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি’র ভূমিকা প্রশংসনীয়। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তোমাদের কাছে সকল পথ খোলা রয়েছে, সফল হতে হলে সঠিক পথ বেছে নিতে হবে। তবেই দেশ ও জাতি পাবে কাংখিত ফলাফল।

সভাপতির বক্তৃতায় ইইউ উপাচার্য বলেন, কোন জাতিই শিক্ষা ব্যতিত উন্নতির চরম শিখরে আরোহন করতে পারেনা। যে জাতি যত বেশি শিক্ষিত সে জাতি তত বেশি উন্নত। অত্র বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে শিক্ষিত, যুগোপযোগী ও যোগ্য জাতি গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে আগত অতিথিবৃন্দ আগামী প্রজন্মের উৎসাহে এমন আয়োজনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। মুহাম্মদ ইমতিয়াজ ও জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য, বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষ, সাংবাদিক, কৃতি শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক, ইইউ’র শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ। সবশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার মোহাম্মদ সিদ্দিক হোসাইন।

অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিলো আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, আলিফ গ্রুপ, আল-আমিল প্রো: লি:, আমিন মোহাম্মদ ফাউন্ডেশন, আইএফআইএল, ন্যাশনাল ব্যাক এবং মিডিয়া পার্টনার ছিলো দৈনিক সমকাল, অবজারভার, ৭১ টিভি, রেডিও ক্যাপিটাল, এডুকেশন২৪.নেট এবং এডুআইকন.কম।

পছন্দের আরো পোস্ট