স্টামফোর্ডে প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত

ভবিষ্যৎ ইঞ্জিনিয়ারদের নিয়ে আজ স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ” সিভিল প্রিমিয়ারলীগ ” সিপিএল।ডিপার্টমেন্টের ৫৯ তম শিক্ষার্থীরা এ টুর্নামেন্টের আয়োজন করে।

ক্লাসের জোড় ও বিজোড় রোল এর উপর ভিত্তি করে টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়।জাঁকজমকপূর্ণ এ প্রীতি টুর্নামেন্ট আয়োজনের উদ্ভোধন করেন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট এর সহযোগী অধ্যাপক ড. আলী আহমেদ।প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. বিসি বসাক,সহকারী অধ্যাপিকা ফারহানা চৌধুরী,অনুষদের লেকচার আহসান হাবীব।

পুরো অনুষ্ঠানজুড়ে সঞ্চালনায় ছিলেন ৫৯ তম ব্যাচের ছাত্র হাসান সাকিব।

দিনের প্রথম ম্যাচে জোড় দলের ক্যাপ্টেন আবিদুর রহমান ও বিজোড় দলের ক্যাপ্টেন মিনহাজুল ইসলাম টস করেন।টসে জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় জোড় দল।তখনো ঝড়টা দানা বাধেনি।দ্বিতীয় ওভার থেকে জোড় দলের ওপেনার মেহেদী হাসানের মারমুখী চারে বেশ কিছুটা চিন্তায় পড়তে হয় বিজোড় দলকে।ব্যাক্তিগত ৪৪ রান নিয়ে সাজঘরে ফিরলে রানের চাকা থমকে যায়।

তারপর টিম ক্যাপ্টেন আবিদুর রহমানের মারমুখী ব্যাটিং তান্ডবে ১২৫ রানের টার্গেট দেয় জোড় টিম।দ্বিতীয় ইনিংসে পাহাড়সম এই রানকে বেশ দক্ষ হাতের ব্যাটিং শৈলীতে জানান দিলে ও দলীয় ক্যাপ্টেন হঠাৎ অফ লাইনে সাইদুরের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন।সংগীর বিদায়ের পর আরাফাত হোসেনের ব্যাটিং ঝড়ে একটু হলে ও হোচট খেতে হয় জোড় দলের। অবশেষে ৮৫ রানেই গুটিয়ে যায় দলটি।দ্বিতীয় ম্যাচে জোড় দলের ৮৮ রানের টার্গেটকে তাড়া করতে গিয়ে ধরাশয়ী হতে হয় দলটিকে।

অবশেষে তৃতীয় ম্যাচের সম্মান বাচানোর লড়াইটাতে ও হেরে গিয়ে ৩-০ তে হোয়াইট ওয়াশ হতে হয় বিজোড় দলটিকে।ব্যাক্তিগত ৮৮ রান নিয়ে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন মেহেদী হাসান শাওন।টুর্নামেন্টের আয়োজনে ছিলেন ইশতিয়াক আহমেদ,তুহিন আরেফিন,আরাফাত হোসেন,তানভীর রেজা,জোড় দলের ভাইস ক্যাপ্টেন শাহ আলম ও বিজোড় দলের ক্যাপ্টেন মিনহাজুল ইসলাম।টিমটির আয়োজক কমিটির তুহিন আরেফিন বলেন ” এরকম একটি প্রীতি টুর্নামেন্ট আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের প্রথম টুর্নামেন্ট, মাঠের দর্শকরা বেশ উল্লসিত ছিল,প্রতিবছর এ টুর্নামেন্টটি আরো বড় করে আয়োজন করার ইচ্ছে আছে আমাদের”।

আয়োজকদের মধ্যে নেতৃত্বে থাকা ইশতিয়াক আহমেদ মনে করেন সব সিভিল ডিপার্টমেন্টের সব ডিপার্টমেন্টকে নিয়ে বড় পরিসরে টুর্নামেন্ট নামানোর চিন্তা আছে।ডিপার্টমেন্ট এর চেয়ারম্যান কে এ ব্যাপারে অবহিত করবেন বলে জানান এ আয়োজক।পরে ব্যাপক উল্লাসের মধ্য দিয়ে জোড় দলের খেলোয়াড়রা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি নিয়ে সেলিব্রেট করে।

পছন্দের আরো পোস্ট