সাফল্যের শীর্ষে চুয়েট স্কুল এন্ড কলেজ

প্রতিবারের মত এস.এস.সি-পরীক্ষার ফলাফলে চুয়েট স্কুল এণ্ড কলেজ এগিয়ে আছে। শীর্ষস্থান ধরে রাখা এই প্রতিষ্ঠানটি থেকে ১৩৩ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাশ করেছে। এদের মধ্যে ৮৫ জনই পেয়েছে জিপিএ-৫। উপজেলার চুয়েটসহ চারটি স্কুল শতভাগ পাশ করার কৃতিত্বের তালিকায় আছে।

স্কুল সমূহ হচ্ছে হারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়, পূর্বগুজরা উচ্চ বিদ্যালয়, পশ্চিম গুজরা উচ্চ বিদ্যালয়। তবে হারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দুইজন জিপিএ-৫ পেলেও পূর্ব গুজরা উচ্চ বিদ্যালয় ও পশ্চিম গুজরা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে কেউ জিপিএ-৫ পায়নি। এবার চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের অধীনে রাউজান উপজেলার ৫৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৪৩০৩ শিক্ষার্থী এস.এস.সি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করে। তাদের মধ্যে ৩৮৬০ জন উত্তীর্ণ হয়েছে।

এখানে সর্বমোট জিপিএ-৫ পাওয়া পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৬৭ জন। শতভাগ পাশ এই উপজেলায় গড় পাশের হার ৮৯.৭১%। যা গত বছর ছিল ৯২.৩৩%। পাশের হারের দিক থেকে সর্বন্নি পর্যায়ে রয়েছে দক্ষিণ নোয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়। এই প্রতিষ্ঠানের পাশের হার ৬২.৫%।

ফলাফল সম্পর্কে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, এবারে সমগ্র চট্টগ্রামে পাশের হার কমেছে। সার্বিক বিবেচনায় রাউজানের ফলাফল ভাল হয়েছে। সেই তুলনায় পাশের হার বেশ ভাল হয়েছে। তার মতে ৫৪ টি বিদ্যালয়ের মধ্যে ৩৬ টি প্রতিষ্ঠানের পাশের হার ৯০শতাংশের উপরে।

পছন্দের আরো পোস্ট