বাল্য বিবাহকে লালকার্ড দেখালো ঝাউডাঙ্গার শিক্ষার্থীরা

002‘থাকলে শিশু বিদ্যালয়ে, হবেনা বিয়ে তার বাল্যকালে’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ‘শিক্ষাই প্রথম-বাল্যবিবাহকে লালকার্ড’ দেখালেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ১১ নং ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। বুধবার সকালে ১১ নং ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে ঝাউডাঙ্গা হাইস্কুল ফুটবল মাঠে সদর উপজেলার বাল্যবিবাহের ঝুঁকিতে থাকা মেয়ে শিশুদের চিহ্নিতকরণ এবং তাদের সেই ঝুঁকি মুক্ত করণের লক্ষে ১১নং ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এবং তাদের অভিভাবকরা ‘শিক্ষাই প্রথম। বাল্যবিবাহকে লালকার্ড’ দেখালেন।

 

003১১ নং ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। এসময় তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরাই বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ করতে পারে। তাদের প্রচেষ্ঠায় তাদের সহ পাঠীদের বাল্য বিবাহের হাত থেকে রক্ষা করতে পারে। ‘বাল্য বিবাহের পরিসংখ্যানে দক্ষিণাঞ্চলে প্রভাব অনেক বেশি। ‘শিক্ষাই প্রথম। বাল্যবিবাহ লাল কার্ড’ দেখানোর মাধ্যমে ১৮ বছরের আগে বাল্য বিবাহকে লাল কার্ড দেখিয়ে বের করে দিতে হবে। আমরা সবাই বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে কাজ করবো। সাংসদ আরো বলেন, কোর্ট ম্যারেজ কোন ম্যারেজ নয়! এফিডেভিট মানে বিয়ে না-শুধু মাত্র ঘোষনা। এটা যদি কেউ বিয়ে মনে করে তাহলে সেটি হবে অবৈধ সম্পর্ক। এছাড়া ১৮ বছরের আগে কোন ব্যক্তি এ ঘোষনা করতে পারবেন না। বাল্য বিবাহের আইন সম্পর্কে জেলা সাংসদ বলেন, বাল্য বিবাহের অপরাধে ছেলে মেয়ের বাবা মা, আত্বীয়-স্বজন এমনকি আমন্ত্রিত অতিথিরাও অপরাধী হিসেবে গন্য হবে। তিনি আরো বলেন, আজ থেকে সদর উপজেলায় আমরা আর কোন বাল্য বিবাহ দেখতে চাই না। কোন মেয়ের যদি বাল্য বিবাহের আয়োজন করা হয় তাহলে সে মেয়ে নিজে হট নাম্বারে ফোন করে অবহিত করবেন। বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ করার পর ঐ শিক্ষার্থীর লেখা পড়া চালানোর দায়িত্ব আমাদের।’

 

এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আসাদুজ্জামান বাবু, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ্ আব্দুল সাদী, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি এ্যাড. আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর ইসলাম, ঝাাউডাঙ্গা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ খলিলুর রহমান, শিক্ষক মোঃ রেজাউল করিম, ১১ নং ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো: রমজান আলী বিশ্বাস। এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলো’র প্রতিনিধি কল্যাণ ব্যানার্জী, এন টিভির জেলা প্রতিনিধি সুভাষ চৌধুরী, সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন, ব্রেকিং দ্য সাইলেন্সের সাতক্ষীরা অফিস ইনচার্জ মোঃ শরিফুল ইসলাম। এসময় অনুষ্ঠানে শপথ বাক্য পাঠ করান ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন শিশু ফোরামের সভাপতি উনাইশা আফরোজ নদী, সাধারন সম্পাদক মুনমুন সুলতানা। অনুষ্ঠানে ‘বাল্য বিবাহকে লাল কার্ড’ শীর্ষক জারি গান পরিবেশন করেন আবুল কাশেম বায়তী।#

 

 

লেখাপড়া২৪.কম/আরএইচ

পছন্দের আরো পোস্ট