চতুর্থ আন্তর্জাতিক বেঙ্গল স্টাডিজ কংগ্রেস সমাপনী

FullSizeRenderজাপানের টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ে শেষ হলো চতুর্থ আন্তর্জাতিক বেঙ্গল স্টাডিজ কংগ্রেস। সমাপনী অনুষ্ঠানে উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ডক্টর এম আজিজুর রহমান বলেন, বিশ্বের যেখানেই বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের চর্চা, সেখানেই উত্তরা ইউনিভার্সিটি ভূমিকা রাখার চেষ্টা করবে। এসময় বক্তারা বাংলা ভাষা ও সাহিত্যেও সার্বজনীনতা নিয়ে আলোচনা করেন। বক্তারা বলেন, পৃথিবীর একমাত্র ভাষা বাংলা, যা রাষ্ট্র ভাষার মর্যাদা পেতে জীবন দিতে হয়েছে। এ ভাষা ও ভাষার জন্য যাঁরা জীবন দিয়েছেন তাঁদেও মর্যাদা সমুন্নত রাখতে এখন বিশ্বব্যাপি পালিত হয় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস।

 

দু’দিন ব্যাপি সম্মেলনের শেষ দিনে দু’টি সেশন পরিচালনা করেন উত্তরা ইউনিভার্সিটির প্রতিনিধিরা। সকালে টোকিও ইউনিভার্সিটির ফরেন স্টাডিজ ফ্যাকাল্টিতে সমকালীণ বাংলা সাহিত্য-১ বিষয়ক আলোচনা হয়। উত্তরা ইউনিভার্সিটির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনায় প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এমিরেটাস ডক্টর আনিসুজ্জামন, কী-নোট স্পিকার হিসেবে বক্তব্য রাখেন ভারতের রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এমিরেটাস ডক্টর বরুণ কুমার চক্রবর্তী এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডক্টর ইয়াসমীন আরা লেখা।

 

দুপুরে সমকালীণ বাংলা সাহিত্য-২ বিষয়ক আলোচনায় সভাপতিত্ব করেন উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডক্টর ইয়াসমীন আরা লেখা। এ পর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এমিরেটাস ডক্টর বরুণ কুমার চক্রবর্তী; কী-নোট স্পিকার হিসেবে বক্তব্য রাখেন আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এমিরেটাস ডক্টর তপধীর ভট্টাচার্য।

 

উল্লেখ্য, টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ে চতুর্থ আন্তর্জাতিক বেঙ্গল স্টাডিজ কংগ্রেস-এ উত্তরা ইউনিভার্সিটি থেকে ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দল অংশ নেয়। এতে বাংলাদেশ থেকে আরও যোগ দিয়েছেন ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান, এমিরেটাস অধ্যাপক ডক্টর আনিসুজ্জামান, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান-সহ প্রায় ৪০ জনের একটি প্রতিনিধি দল। এছাড়া ভারত থেকেও শতাধিক শিক্ষক, গবেষক ও শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন।

 

লেখাপড়া২৪.কম/উত্তরা/পিআর/স্বশা-৪৫৫০

পছন্দের আরো পোস্ট