বেরোবি ভর্তি পরীক্ষার শেষ দিনে আটক দুই

বেরোবিবেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সম্মান প্রথমবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার চতুর্থ দিন বৃহস্পতিবার অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে দুই শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

 

 

বৃহস্পতিবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাউজুল কবীর এই দন্ডাদেশ দেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর(চলতি দায়িত্ব) মো. শাহীনুর রহমান লেখাপড়া২৪.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

এ নিয়ে ভর্তি পরীক্ষার দুই দিনে (৮ ও ১০ ডিসেম্বর) ৩ জন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড প্রদান করা হলো। যাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

 

ভর্তি পরীক্ষার শেষ দিন বৃহস্পতিবার ভর্তি পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি উপজেলার মাহবুবুল ইসলামের ছেলে শহিদুল ইসলামকে ১৫ দিনের এবং মাদারীপুর জেলার শরীয়তপুর উপজেলার সঞ্জিত মন্ডলকে ৩ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন।

 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় অনুষ্ঠিত প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত ‘ই’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে শহিদুল ইসলাম ও সঞ্জিত মন্ডল পরস্পরের মধ্যে ওএমআর(অপটিক্যাল র্মাক রিডার) শিট বদল করে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। এ সময় ওই কক্ষে দায়িত্বরত পরিদর্শকরা বিষয়টি বুঝতে পেরে তাদের আটক করে।

 

এর আগে গত মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর) ভর্তি পরীক্ষায় বিজনেস স্টাডিজ অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটে কান ছিদ্র করে ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস বসিয়ে বাহির থেকে শুনে উত্তরপত্র পূরণকালে হল পরিদর্শক বিষয়টি বুঝতে পেরে ভ্রাম্যমাণ আদালত সোর্পদ করেন। দন্ডপ্রাপ্ত পরীক্ষার্থী ঠাকুরগাঁও জেলার রানীশংকৈল উপজেলার মাজাহিদাবাদ ইউনিয়নের বটতলী গ্রামের মো. আবকর আলীর পুত্র আল মাসুম পারভেজ।

 

কথা বললে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী লেখাপড়া২৪.কমকে বলেন, বিগত বছরের ভর্তি অভিজ্ঞতা থেকে এ বছর ভর্তি পরীক্ষায় কঠোর সতর্কতা অবলম্বনসহ কয়েক স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছিল। ফলে ভর্তি পরীক্ষা উৎসব মুখর পরিবেশে শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে।#

 

 

লেখাপড়া২৪.কম/বেরোবি/সজীব/আরএইচ-৪৯০৮

পছন্দের আরো পোস্ট