কাপাসিয়ায় শহীদ তাজউদ্দীন কলেজে নবীন বরণ

????????????????????????????????????

জাতীয় নেতা ও স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ-এর জন্মভূমি কাপাসিয়ায় প্রতিষ্ঠিত শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ ডিগ্রি কলেজের নতুন ভবন উদ্বোধন ও নবীন বরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির ভাষণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ বলেন, “স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধুর তাজউদ্দীন আহমদ এর মত একজন সুশৃঙ্খল সংগঠক, ধীমান রাজনীতিক, আপোষহীন নেতৃত্ব ও বিশ্বস্ত রাজনৈতিক সহচর একান্ত প্রয়োজন ছিল। বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতিতে যিনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে সফল নেতৃত্বদান করেছেন, সেই তাজউদ্দীন আহমদ-কে ১৯৭৫ সালের ৩রা নভেম্বর কারাগারে বন্দি থাকা অবস্থায় কী নিষ্ঠুর ভাবেই ঘাতক-খুনী চক্রের হাতে প্রাণ বিসর্জন দিতে হলো! বাংলাদেশ সৃষ্টির সঙ্গে যে নাম মিশে একাকার হয়ে আছে, সে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ-এর মৃত্যু নেই। বাঙালির ইতিহাসে সে নাম চিরঅম্লান হয়ে থাকবে।”

 

উপাচার্য নবীন শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়ে জাতীয় নেতা তাজউদ্দীন আহমদ-এর জীবন ও আদর্শ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে নিজেদের সুযোগ্য ও দেশপ্রেমিক নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার পরামর্শ দেন।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ-এর সুযোগ্য কন্যা, মাননীয় সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি বলেন,“শুধু পিতা হিসেবেই নয়, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবেও শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ বিরল গুনের অধিকারী ছিলেন। সততা, নিষ্ঠা, নিরহংকার ছিল তাঁর চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য। তাঁকে হত্যা করা হলেও, তাঁর আদর্শ বেঁচে আছে, যা যুগ যুগ ধরে আমাদের অনুপ্রাণিত করবে, পথ দেখাবে।”
অনুষ্ঠানে কলেজের অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরী সভাপতিত্ব করেন।

 

লেখাপড়া২৪.কম/জাতীয়/পিআর/স্বশা-৪৫১৬

পছন্দের আরো পোস্ট