রাইন-ভাল ইউনিভার্সিটি অব অ্যাপ্লায়েড সায়েন্সেস

images (4)রাইন-ভাল ইউনিভার্সিটি অব অ্যাপ্লায়েড সায়েন্সেস জার্মানির নর্থ রাইন ওয়েস্টফেলিয়া রাজ্যের অন্যতম বিশ্ববিদ্যালয় ৷ এখানে প্রচুর বাংলাদেশি ছাত্রছাত্রী রয়েছে৷ বিজ্ঞান ও ব্যবসা নিয়ে পড়ার জন্য রাইন-ভাল ইউনিভার্সিটি খুব ভালো ৷রাইন-ভাল বিশ্ববিদ্যালয় মাত্র চার বছর আগে তার যাত্রা শুরু করেছে৷ বিগত ২০০৯ সালের পহেলা মে এই বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হয়৷ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এ বিশ্ববিদ্যালয়টি বিদেশি ছাত্রছাত্রীদের একটি মিলনস্থলে পরিণত হয়েছে৷ রাইনভাল ইউনিভার্সিটিতে জার্মান এবং ইংরেজি দুটি ভাষাতেই পড়াশোনা করা যায়৷ সেটি ব্যাচেলর হোক কিংবা মাস্টার্স৷

প্রতি বছর বিশ্ববিদ্যালয়টি তার পরিসীমা বাড়িয়ে চলেছে৷ গত বছরের শীতকালীন মৌসুম থেকে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে চারটি অনুষদে ২০ টি নতুন ব্যাচেলর এবং তিনটি নতুন মাস্টার্স কোর্স শুরু হয়েছে৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের রয়েছে দুটি ক্যাম্পাস৷ একটি রয়েছে ক্লিভ শহরে, অন্যটি ক্যাম্প লিনফোর্ট এলাকাতে৷ দুটি ক্যাম্পাসেই এখনও অবকাঠামো সম্প্রসারণের কাজ চলছে৷ নতুন এই বিশ্ববিদ্যালয়ে তাই পড়াশোনা ও গবেষণার জন্য অত্যাধুনিক সব ধরণের সুযোগ সুবিধা ও প্রযুক্তি রয়েছে৷ এর বাইরে এমারিশ শহরেও বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অন্তর্বর্তী ক্যাম্পাস রয়েছে৷

RTEmagicC_Bild_Hörsaal_klein.jpgএই বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে চারটি অনুষদ৷ এগুলো হলো টেকনোলজি অ্যান্ড বায়োনিক্স, লাইফ সায়েন্স, কম্যুনিকেশন অ্যান্ড এন্ডভায়রনমেন্ট এবং সোসাইটি অ্যান্ড ইকনোমিক্স৷ প্রতি বছর গ্রীষ্মকালীন ও শীতকালীন সেমেস্টারে ছাত্রছাত্রী ভর্তি করা হয়৷ এখানেই দুই বছর আগে ভর্তি হয়েছেন বাংলাদেশি ছাত্র নুর হোসাইন নাইম৷ তিনি এখানে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস নিয়ে ব্যাচেলর করছেন৷ তিনি জানান, বাংলাদেশে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে পড়ার সময় এই রাইন-ভাল ইউনিভার্সিটির খবর তিনি পান৷

বাংলাদেশের তুলনায় জার্মানির পড়াশোনার যে পার্থক্য সেটা কেবল ব্যবহারিক এর বেলাতেই নয়, তত্ত্বীয় এর বেলাতেও৷ আন্তর্জাতিক ব্যবসা নিয়ে পড়তে গিয়ে গত দুই বছরে সেটি অনুধাবন করেছেন নাইম৷ পড়া এবং পরীক্ষা এই দুটিতেই জার্মানির শিক্ষা ব্যবস্থা ভিন্ন৷ চালু হওয়ার পর গত কয়েক বছরে হোখশুলে রাইন-ভাল এ বিদেশি ছাত্রছাত্রীর আগমন ক্রমেই বাড়ছে৷ এসব ছাত্রছাত্রীর মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি অংশ বাংলাদেশ সহ দক্ষিণ এশিয়া থেকে আসা ৷

images (3)রাইন-ভাল ইউনিভার্সিটিতে বর্তমানে পাঁচ হাজার ছাত্রছাত্রী পড়াশোনা করছে৷ শিক্ষার্থীদের জন্য বিদেশে একটি সেমেস্টার পড়ারও সুযোগ রয়েছে৷ এর মাধ্যমে তারা সেখানে পড়ার পাশাপাশি ভিন্ন সংস্কৃতিরও অভিজ্ঞতা অর্জন করবে৷ দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ, ভারত ছাড়াও চীন, নেদারল্যান্ডস, রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে শিক্ষার্থী বিনিময় কার্যক্রম রয়েছে রাইন-ভাল ইউনিভার্সিটির৷

 

সম্প্রতি রাইন-ভাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রাচ্যের অক্সফোর্ড নামে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে যৌথ শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করেছে ৷ ইতিমধ্যে বাংলাদেশ থেকে রাইন-ভাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে এসেছে প্রায় ৫০ জন শিক্ষার্থী৷

মূলত ফলিত বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় উচ্চ শিক্ষার ব্রত নিয়েই ২০০৯ সালের ১লা মে প্রতিষ্ঠা লাভ করে রাইন-ভাল বিশ্ববিদ্যালয়৷ তবে বিজ্ঞানের বাইরেও আইন এবং বিবিএ রয়েছে এখানে৷ জার্মানির যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে হলে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের সামনে প্রথম যে বাধা আসে তা হলো জার্মান ভাষা জানার বাধ্যবাধকতা৷ তবে সেই বাধা দূর করে আন্তর্জাতিক ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য শিক্ষার সুযোগ সহজতর করতে চায় রাইন-ভাল বিশ্ববিদ্যালয়৷ সেজন্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য ইংরেজি মাধ্যমেই লেখাপড়ার ব্যবস্থা করেছে তারা৷

5bb5056c78রাইন-ভাল গড়ে তুলতে চায় বিশ্বের খ্যাতিমান উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে গবেষণা, বৃত্তি এবং প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে পারস্পরিক সহযোগিতা ও মেধা বিনিময়ের সম্পর্ক৷ এর অংশ হিসেবে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে ইতিমধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে রাইন-ভাল বিশ্ববিদ্যালয়৷ আর চলতি বছরের শীতকালীন সেমেস্টারেই বাংলাদেশ থেকে রাইন-ভালের ক্যাম্পাসে হাজির হয়েছে প্রায় ৫০ জন শিক্ষার্থী৷ এখানে বায়োনিক্স, ডেভেলপমেন্ট ইকোনোমিক্স, ন্যানো টেকনোলজির মতো বিষয়গুলোতে লেখাপড়া করার সুযোগ রয়েছে যেগুলো বিষয়ে লেখাপড়ার সুযোগ এখনও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নেই৷

অবশ্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শুধু রাইন-ভাল নয় বরং বিশ্বের প্রায় ৩০০ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সমঝোতা স্মারক রয়েছে ৷

পছন্দের আরো পোস্ট