খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

Khulna University photo jpg(1)উদ্বোধন করা হয়েছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের অসমাপ্ত অংশের নির্মাণ কাজে। আর্থিক সহযোগিতার অভাবে প্রায় একযুগ পরমসজিদটির নির্মান কাজ পুনরায় শুরু করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান আজ বেলা ১১.৩০মিনিটে নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের নির্মান কাজ শুরু হয় ২০০৩ সালে। কিন্তু অর্থাভাবে তা স্থগিত করা হয়। বর্তমান মসজিদে জুম্মার নামাজসহ অন্যান্য নামাজ আদায়ে জায়গার সংকুলন হচ্ছে না। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদ নির্মাণের বিষয়টি দীর্ঘদিন ধরে প্রত্যাশিত ছিলো। অর্থাভাবে নির্মাণকাজ শুরু করা যাচ্ছিলো না। সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন থেকে অর্থের অনুমোদন পাওয়া গেছে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের ফান্ডে নির্মাণকাজ শুরু করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তবে এ অর্থে মসজিদের পুরো নির্মাণ কাজ শেষ করতে আরও অর্থের প্রয়োজন । খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য বলেন, মসজিদ যেহেতু মহান আল্লাহর ঘর, পবিত্র স্থান তাই নির্মাণ কাজ শুরু হলে ইনশাল্লাহ শেষ হবে এবং ছাত্র, শিক্ষকসহ সবার জন্য জুম্মার নামাজসহ ওয়াক্তিয় নামাজ আদায়ে সুবিধা হবে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ ধর্মপ্রাণ ও দানশীল ব্যাক্তিদের এই সেন্ট্রাল মসজিদের নির্মাণ কাজে শরীক হওয়ার জন্য আহবান জানান যাতে করে কাজটি পূর্ণভাবে শেষ করা যায়। এ উপলক্ষে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন বর্তমান মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস। এর আগে সূচনা বক্তব্য রাখেন মসজিদ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক খান গোলাম কুদ্দুস। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার, ডিনবৃন্দ, রেজিস্ট্রার, ডিসিপ্লিন প্রধান, বিভাগীয় প্রধান ও শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, ছাত্ররা উপস্থিত ছিলেন।
১৬ হজার বর্গফুট আয়তন এবং একতলা ফাউন্ডেশন বিশিষ্ট খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদের নির্মাণ কাজ শেষ হলে ২হাজার জন একসাথে নামাজ আদায় করতে পারবেন। মসজিদটির পুরো নির্মাণ কাজের ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় সাড়ে তিনকোটি টাকা। ইতোমধ্যে পাইলিং এর কাজ শেষ হয়েছে।

পছন্দের আরো পোস্ট