ইবিতে চাকরির দাবিতে ভিসির কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ

IU PIC 9চাকরির দাবিতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকর্মী ও বহিরাগতরা ভিসির কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে ভাংচুর করেছে।

 

বুধবার দুপুর ২ টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনে ভিসির কার্যালয়ের সামনে চাকরীর দাবিতে বিক্ষোভ করে তারা। টানা তিন ঘন্টা অবরুদ্ধ রেখে ভিসিকে উদ্দেশ্য করে নানা ধরনের কুরুচিপূর্ণ স্লোগান দিতে থাকে বহিরাগত চাকরী প্রত্যাশীরা। এসময় একই দাবিতে বেলা সোয়া দুইটা থেকে প্রায় তিনটা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেটে তালা লাগিয়ে অবরোধ করে তারা।

 

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, চাকরি প্রত্যাশী ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকর্মী ও বহিরাগতরা বুধবার বেলা ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনে ভিসির কার্যালয়ে যায়। এসময় তারা চাকরীর দাবিতে ভিসির কার্যালয় অবরুদ্ধ করে ভাংচুর চালায়। বহিরাগত সাবেক ছাত্রলীগের ক্যাডার আশিকুর রহমান জাপান, তৌফিকুর রহমান হিটলার, মাহমুদ হাছান লেলিন, কাশেম, টিটু, শিমুলের সহ ২০/২৫ জন ভিসির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। এতে গোটা প্রশাসন ভবনে অবস্থানরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

 

একই দাবিতে বেলা  সোয়া ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেইটে তালা ঝুলিয়ে দেয় চাকরী প্রত্যাশী বহিরাগতরা। ফলে ক্যাম্পাস থেকে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া রুটে ছেড়ে যাওয়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বহনকারী বেলা আড়াইটার গাড়ী আটকে যায়। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। পরে বেলা ৩টার দিকে সহকারী প্রক্টর শরফুদ্দিন সুহাষ ও মো. আলতাফ হোসেনের নেতৃত্বে মেইন গেটের তালা ভেঙে দেয় পুলিশ। তালা ভাঙার পরে ক্যাম্পাসের বাস চলাচল সাভাবিক হয়।

 

চাকরী প্রত্যাশী একাধিক সূত্র জানায়, ‘প্রশাসন আমাদেরকে তালিকা দেওয়ার কথা বলে সেই তালিকা দেওয়ার আগেই তারা আবার সিন্ডিকেট মিটিং-এর তারিখ নির্ধারন করে ফেলেছেন। প্রশাসন আমাদের সাথে নাটক করে আমাদেরকে চাকরি না দেওয়ার পায়তারা করছেন”।

ছাত্রলীগের আহ্বায়ক শামীম হোসেন  খান বলেন-‘সাবেক নেতাকর্মীদের সাথে চাকরীর ব্যাপারে প্রশাসনের কি ধরণের কথাবার্তা হয়েছে তা আমার জানা নেই। তবে প্রশাসন আমাদের কাছে ৪জনের একটা তালিকা চেয়েছে। সেই তালিকা চুড়ান্ত হতে সময় লাগবে।’

 

প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘আমি অফিসিয়াল কাজে বাইরে আছি। তবে ঘটনা শুনেই ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছি। ক্যাম্পাসে পৌছে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে’। বর্তমানে ক্যাম্পাস সাভাবিক রয়েছে বলেও তিনি জানান।

এব্যাপারে ভিসি প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকার বলেন, ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকর্মীদের হুমকি ও দাবির প্রেক্ষিতে আগামিকালের (বৃহস্পতিবারের) সিন্ডিকেট মিটিং স্থগিত করা হয়েছে। পরবর্তীতে মিটিং-এর সময় নির্ধারণ করা হবে।

 

সঃ সুউ ফয়সাল

 

পছন্দের আরো পোস্ট