মার্কিন স্কুলের ম্যাথ কারিকুলাম আপগ্রেড: বাংলাদেশিদের ভালো করার সুযোগ

আমেরিকার স্কুলের ছেলে-মেয়েরা এমনিতেই ম্যাথ-এ ভালো করতে পারে না, এরমধ্যে ৪০টি স্টেটের স্কুলগুলোতে ম্যাথ কারিকুলাম বা পাঠ্যসূচি আপগ্রেড করা হয়েছে। এরফলে, ছাত্র-ছাত্রীরা প্রচন্ড চাপের মধ্যে পড়েছে। না পারছে স্কুলে পড়া বুঝে নিতে, না পারছে বাড়িতে হোমওয়ার্ক করতে। অভিভাবকরাও ছেলে-মেয়েদের হোমওয়ার্কে সাহায্য করতে পারছেন না, কারণ তারাও আধুনিক যুগের অঙ্কের সঙ্গে অভ্যস্ত নয়।

bored-student20140626024412দেশে দেশে ম্যাথের স্টান্ডার্ড প্রতিবছর জরিপ করা হয়। সারাবিশ্বের রেটিং-এ অন্যদেশের তুলনায় আমেরিকার অবস্থান কয়েক বছর ধরে ১৯তম। আর তাই, ম্যাথের স্টান্ডার্ড ভালো করার জন্য ৪০টি স্কুলের কারিকুলামে পরিবর্তন আনা হয়েছে। নিউইয়র্ক টাইমস-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২য় গ্রেড ও ৩য় গ্রেড থেকেই বাচ্চাদের অঙ্ক, এলজেব্রা ও ত্রিকনোমিতির পাঠ্যসূচিতে অনেক নতুন কোর্স দেয়া হয়েছে। কিন্তু বাচ্চারা হোমওয়ার্ক করতে গিয়ে অভিভাবকদেরও সাহায্য পাচ্ছে না। এতে বাংলাদেশি ও ভারতীয় ছাত্র-ছাত্রীদের ম্যাথে ভালো করার সুযোগ বেড়ে গেলো। কারণ, ঐতিহ্যগতভাবে ভারত-বাংলাদেশে অঙ্কের অনেক বেসিক সূত্র প্রাইমারি লেভেল থেকেই মুখস্থ করতে হয়। এলজেব্রা ও ত্রিকোনমিতির অনেক সূত্র মনে রাখতে হয়। যোগ-বিয়োগ-গুণ-ভাগের ধারনা ছোটবেলা থেকেই গড়ে ওঠে। নামতা সুর করে করে ছড়ার মতো পড়তে হয়। ফলে, আমেরিকা প্রাবাসী বাংলাদেশি ছেলে-মেয়েরা এমনিতেই ম্যাথ-এ ভালো করার সুনাম তো আছেই। নতুন কারিকুলামেও অন্যেরা আরো পিছিয়ে পড়ার প্রেক্ষাপটে ভালো স্কোর করতে পারবে। শুধু ছাত্র-ছাত্রীরাই নয়, স্কুলগুলোতে অঙ্কের শিক্ষক হিসেবেও বাংলাদেশিদের নিয়োগ লাভে আগের চেয়ে বেশি সুযোগ বয়ে আনবে বলে অনেক বাংলাদেশি আশা করছেন।

পছন্দের আরো পোস্ট