উত্তরায় অপহৃত কলেজছাত্রী উদ্ধার, আটক ৪

opohoronরাজধানীর উত্তরায় নৈশ প্রহরী লিটনকে গুলি করে হত্যা এবং হবু স্বামী মাহফুজুল হককে কুপিয়ে জখম করে অপহরণ করার পাঁচ ঘণ্টা পর কলেজছাত্রী ফাতেমাকে মিরপুর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে চারজনকে আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার ভোর রাত চারটার দিকে রাজধানীর মিরপুরের কাফরুল থেকে ফাতেমাকে উদ্ধার ও অপহরণকারী সন্দেহে চারজনকে আটক করে পুলিশ।

অপহৃত ফাতেমা ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ব্যবসায় শিক্ষা শাখার ছাত্রী এবং গাজীপুরের কড্ডা এলাকার সাইফুল ইসলাম মোল্লার মেয়ে।

অপহরণের পর উদ্ধার ফাতেমার সঙ্গে মাহফুজের আংটি বদল হয়েছে এবং কিছু দিন পর তাদের বিয়ের কথাও রয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে, নিহত লিটনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে এবং উত্তরার একটি হাসপাতালে আহত মাহফুজ চিকিসাধীন রয়েছেন।

মিরপুরের দক্ষিণ কাফরুল এলাকা থেকে ভোর রাত চারটার সময় অপহৃত ফাতেমাকে উদ্ধার এবং জড়িত থাকার সন্দেহে চারজনকে আটক করে পুলিশ ।
এ ব্যাপারে উত্তরা (পূর্ব) থানার অপারেশন অফিসার উপপরিদর্শক (এসআই) নুর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
অপরদিকে, পুলিশের একটি বিশস্ত সূত্র জানায়, রাজধানীর দক্ষিণ কাফরুল এলাকায় ভোররাত চারটার দিকে উত্তরা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনারের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এ সময় অপহৃত ফাতেমাকে উদ্ধারের পাশাপাশি অপহরণের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রুম্মন, তার বাবা, ভাইসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ ।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, আটকের পর উত্তরা (পূর্ব) থানার সহকারী পুলিশ কমিশনারের রুমে তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

পরে সকালে ফাতেমাকে পরিদর্শক (তদন্ত) সালাউদ্দিনের রুমে ডিবি ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

এরপর দুপুর ১২টা ১০ মিনিটের সময় ফাতেমাকে উত্তরা (পূর্ব) থানার পুলিশ গাড়িতে (ঢাকা মেট্রো চ- ১১-২৮০৮) করে ডিএমপি মিডিয়ার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়।

উত্তরা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) মুহাম্মদ সাহেদ ফেরদৌস রানা জানান, বেশ কয়েকজনকে আটক করা হলেও ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে কোনো তথ্য দেওয়া যাবে না।

 

সঃ সুউ ফয়সাল

 

পছন্দের আরো পোস্ট