ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্টেকহোল্ডার কনসালটেশন অনুষ্ঠিত

ঢাবি প্রতিনিধি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেশন, ক্রিয়েটিভিটি এন্ড এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ সেন্টারের উদ্যোগে Capacity Building of Universities in Bangladesh to Promote Youth Entrepreneurship প্রকল্প শীর্ষক দিনব্যাপী এক স্টেকহোল্ডার কনসালটেশন গতকাল ( ১৬ নভেম্বর ২০২১) মঙ্গলবার নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই স্টেকহোল্ডার কনসালটেশন উদ্বোধন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেশন, ক্রিয়েটিভিটি এন্ড এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ সেন্টারের ভাইস-চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. খন্দকার বজলুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কোরিয়া ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সির (কোইকা) কান্ট্রি ডিরেক্টর ডো-ইয়ংআ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। ইনোভেশন, ক্রিয়েটিভিটি এন্ড এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ সেন্টারের নির্বাহী পরিচালক সহযোগী অধ্যাপক মো: রাশেদুর রহমান এবং প্রজেক্ট ম্যানেজার মি. ডেরিক কিম প্রকল্পের সার্বিক বিষয় তুলে ধরেন। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানের স্টেকহোল্ডারগণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

Post MIddle

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য সমন্বিত প্রচেষ্টা চালানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন। স্টেকহোল্ডারদের মধ্যে যোগাযোগ ও সম্পর্ক বৃদ্ধি এবং তরুণ প্রজন্মকে ইনোভেশন ও এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ বিষয়ে দক্ষ ও সক্ষম করে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে Capacity Building of Universities in Bangladesh to Promote Youth Entrepreneurship শীর্ষক পাইলট প্রকল্প কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। উপাচার্য বলেন, এই পাইলট প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশে এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ শিক্ষা ও গবেষণা আরও জোরদার হবে।

উল্লেখ্য, কোইকার আর্থিক সহযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এই পাইলট প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ সরকার এবং দক্ষিণ কোরিয়া সরকারের মধ্যে একটি কর্মপদ্ধতি স্বাক্ষরিত হয়েছে। বাংলাদেশে দক্ষ যুব উদ্যোক্তা গড়ে তোলার লক্ষ্যে ৭.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে ৪ বছর মেয়াদী এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।

পছন্দের আরো পোস্ট