রোমানিয়ায় উচ্চশিক্ষা

মোহাইমিনুল ইসলাম।

রোমানিয়া দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের একটি রাষ্ট্র। দেশটির আয়তন ৯২,০০০ বর্গ মাইল। এর প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে ইউক্রেন, হাঙ্গেরি, মালভোদা, সার্বিয়া, বুলগেরিয়া। রোমানিয়ার জনসংখ্যার প্রায় ১৯ মিলিয়ন।১ রোমানিয়ান লিউ = ২০.৬২ বাংলাদেশী টাকা।

উচ্চশিক্ষা
রোমানিয়া দেশটি আমাদের দেশের শিক্ষার্থীদের কাছে খুব একটা পরিচিত না। দেশটিতে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর সংখ্যাও সীমিত। রোমানিয়ার শিক্ষা ব্যবস্থা তুলনামূলক ভালো। দেশটিতে বেশ কিছু ভালো মানের বিশ্ববিদ্যালয় আছে। যেগুলোতে আপনি কম খরচে সাইন্স, কমার্স, আর্টস এর নানান বিষয়ে ভর্তি হতে পারবেন।

টিউশন ফি
ভার্সিটি, কোর্স ভেদে টিউশন ফি কম বেশি হতে পারে। তবে সাধারণত প্টিউশন ফি ২০০০ – ৫০০০ ইউরো (প্রতি বছর) হয়ে থাকো।

স্কলারশিপ
প্রতি বছর রোমানিয়ান সরকার বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য স্কলারশিপের ব্যাবস্থা করে থাকে। যার ফল প্রকাশ হয়। ব্যাচেলরে, মাস্টার্স এবং পিএইচডি লেভেলের শিক্ষার্থীরা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবে।

সুযোগ-সুবিধা
– টিউশন ফি বহন করতে হবে না।
– থাকা, খাওয়ার খরচ রোমানিয়ান সরকার বহন করবে।
– ব্যাচেলরের একজন শিক্ষার্থী ৬৫, মাস্টার্স ৭৫ এবং পিএইচডি লেভেলের শিক্ষার্থী মাসে ৮৫ ইউরো পেয়ে থাকে।

আববেদনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
১। আবেদন ফর্ম
২। যে ভার্সিটিতে পড়তে আগ্রহী সেই ভার্সিটির আবেদন ফর্ম
৩। সকল একাডেমিক সার্টিফিকেট এবং নম্বর পএ
৪। জন্ম নিবন্ধন বা বার্থ সার্টিফিকেট
৫। পাসপোর্ট
৬। মেডিকেল সার্টিফিকেট
৭। সিভি (euro-pass)
৮। দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি
বিস্তারিত: https://www.mae.ro/en/node/10251

পার্ট-টাইম জব
রোমানিয়াতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পাশাপাশি কাজ করার সুযোগ রয়েছে। বেশিরভাগ কাজ গুলো সাধারণত কল সেন্টার, আইটি, বার, রেস্টুরেন্ট, ইংলিশ টিচিং সেটারে হয়ে থাকে। একজন বিদেশি শিক্ষার্থী দিতে চার ঘণ্টা কাজ করতে পারবে। এর বেশি কাজ করলো চাইলে আলাদা ভাবে ওয়ার্ক পারমিট নিতে হবে। জুলাই মাসে।

লিভিং কষ্ট
রোমানিয়াতে লিভিং কস্ট অন্য অনেক ইউরোপীয় দেশের তুলনায় অনেক কম। মাস আপনি ১৮৫ – ৩৫০ ডলারে চালিয়ে নিতে পারবেন।
ভার্সিটি:
-Bucharest University of Economic Studies (World Ranking: 601)

– AlexandrubLoan Cuza University of Lasi (World Ranking: 1001)

– Babes-Bolyai University (World Ranking: 1001)
– University of Bucarest
– West University of Timisoara

এছাড়াও আরো অনেক ভার্সিটি রয়েছে। উল্লেখিত ভার্সিটি গুলো ভালো মানের।
* বাংলাদেশে রোমানিয়ার কোন এমবাসি নেই। তাই স্কলারশিপ, ভিসার কাজের জন্য ভারত (দিল্লী) যেতে হবে।
* লেখাপড়া শেষ করে ওয়ার্ক পারমিটের জন্য আবেদন করতে পারবেন। একটানা পাঁচ বছর থাকার পর চজ এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। রোমানিয়াতে অন্য সেক্টর গুলোর তুলনায় ওঞ সেক্টরের জব বেশি।
* IELTS/TOEFL, যদি ভার্সিটিতে চায় তাহলে লাগবে। আপনি ভার্সিটির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট চেক করলে পেয়ে যাবেন আপনার পছন্দের কোর্সে ভর্তি হতে IELTS/TOEFL লাগবে কি না।

পছন্দের আরো পোস্ট