জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন শুরু

জাবি প্রতিনিধি।

গতকাল (১২ জানুয়ারি ২০২১) ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

সকাল সাড়ে নয়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিস অনুষদ চত্বরে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী দিবসের কর্মসূচি উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম।

অনলাইনে যুক্ত হয়ে উপাচার্য তাঁর উদ্বোধনী ভাষণে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় এবং বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর সকাল দশটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের পাদদেশে বৃক্ষ রোপন করা হয়। বেলা সাড়ে দশটায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য, প্রো-উপাচার্য, কোষাধ্যক্ষ এবং বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষকদের এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের পরিচালক অধ্যাপক ড. আলমগীর কবীরের পরিচালনায় ভার্চুয়াল এ সভায় প্রাক্তন উপাচার্য এবং শিক্ষকগণ স্মৃতিচারণ করেন। এ সময় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদ (জাকসু) প্রাক্তন ভিপি, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় যোগ দিয়ে বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষকগণ দল-মতের উর্ধ্বে উঠে শিক্ষার্থীদের সন্তানের ন্যায় স্নেহ করেন।

তিনি বলেন, পরস্পরকে সহযোগিতা করা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি। ভবিষ্যতে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অগ্রযাত্রা আরও ত্বরান্বিত হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর উদ্বোধনী দিনে সন্ধ্যায় ভার্চুয়াল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়। উল্লেখ করা প্রয়োজন যে, ১৯৭০-১৯৭১ শিক্ষাবর্ষে ৪ জানুয়ারি অর্থনীতি, ভূগোল, গণিত ও পরিসংখ্যান-এই চারটি বিভাগে ভর্তিকৃত (প্রথম ব্যাচে) ১৫০জন ছাত্র নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হলেও ১৯৭১ সালের ১২ জানুয়ারি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আহসান এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শুভ উদ্বোধন করেন। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য ছিলেন বিশিষ্ট রসায়নবিদ অধ্যাপক ড. মফিজ উদ্দিন আহমদ।

পছন্দের আরো পোস্ট