ড্যাফোডিল শিক্ষার্থীদের উদ্যোক্তা উন্নয়ন তহবিল

ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনোভেশন ও এন্ট্রেপ্রেনিউরশিপ ডিপার্টমেন্ট শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা উদ্যোক্তা হতে চায়, তাদেরকে আরো উৎসাহিত করার জন্য ৩ কোটি টাকার আর্থিক তহবিল প্রদান করছে । তহবিলের মূল উদ্দেশ্য হলো এন্ট্রেপ্রেনিউরিয়াল মাইন্ডেড শিক্ষার্থীদের কে ব্যবসা শুরু করার জন্য ও যাদের ব্যবসা আছে তাদের ব্যবসায় স্কেলিবিলিটি নিশ্চিত করতে সহায়তা করা । এ পর্যন্ত ৫০ লক্ষ টাকা এন্টারপ্রেনারশিপ ডেভলপমেন্ট ফান্ডের (ইডিএফ) মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ব্যবসা শুরু ও ত্বরান্বিত করার জন্য দেওয়া হয়েছে। সুদ মুক্ত ঋণ হিসেবে এই তহবিল বিভিন্ন মেয়াদের জন্য দেয়া হয় এবং মেয়াদ শেষে ব্যবহারকারী কেবলমাত্র মূল টাকা পরিশোধ করবে।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এম লুৎফর রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় এন্টারপ্রেনারশিপ ডেভলপমেন্ট ফান্ড (ইডিএফ) থেকে ৩ কোটি টাকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা ব্যবসা শুরু / পরিচালনা / ত্বরান্বিত করার জন্য বিনা সুদে এই ফান্ড ব্যবহার করতে পারবে। তিনি আরও বলেন, করোনা চলাকালীন এবং পরবর্তী সময়ে এই তহবিলটি আমাদের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের জন্য একটি দুর্দান্ত সুযোগ হবে এবং মহামারী পরিস্থিতির পরেও তাদের ব্যবসা শুরু করতে উৎসাহিত করবে।

ব্যবসা ও উদ্যোক্তা অনুষদের ডিন প্রফেসর ডঃ মোহাম্মদ মাসুম ইকবাল জানান, আমাদের ইনোভেশন ও এন্ট্রেপ্রেনিউরশিপ ডিপার্টমেন্ট ২০১৮ সাল থেকে শিক্ষার্থীদের জন্য এন্ট্রেপ্রেনিউরশিপ ডেভেলপমেন্ট ফান্ড (ইডিএফ) সরবরাহ করে আসছে।

আমরা আমাদের উদ্যোগকে ত্বরান্বিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি । গতানুগতিক ও কোভিড পরবর্তী পরিস্থিতিতে নতুন নতুন ব্যবসায়ের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এই সুযোগ গুলাকে কাজে লাগিয়ে আমরা আমাদের শিক্ষার্থীদের উদ্যোক্তা হতে উৎসাহিত করছি।

এ ক্ষেত্রে আমরা আমাদের নিজস্ব এন্ট্রেপ্রেনিউরিয়াল ইকো-সিস্টেমের মাধ্যমে এই নবীন উদ্যোক্তাদের ব্যাবসায়িক ধারণা উদ্ভাবন, ফান্ডিং এবং বাণিজ্যিকীকরণ পর্যন্ত সকল ক্ষেত্রে সর্বাত্বকভাবে পাশে থাকবো ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসকল শিক্ষার্থীরা ব্যবসায় শুরুর ক্ষেত্রে কিংবা ব্যবসা তরান্নিত করতে আর্থিক সংকটে পড়েছে, তাদেকে ইনোভেশন ও এন্ট্রেপ্রেনিউরশিপ ডিপার্টমেন্ট অফিসে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে ।

পছন্দের আরো পোস্ট