ড্যাফোডিলে শুরু হচ্ছে ‘টিচিং অ্যাপ্রেন্টিচ ফেলোশিপ’ কার্যক্রম

নিজস্ব প্রতিবেদক।

একুশ শতকের উপযোগী দক্ষ, নেতৃত্ব গুণসম্পন্ন ও প্রশিক্ষিত শিক্ষক তৈরির লক্ষ্যে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি শুরু করতে যাচ্ছে ‘টিচিং অ্যাপ্রেন্টিচ ফেলোশিপ (টিএএফ)’ প্রোগ্রাম। এই ফেলোশিপ প্রোগ্রামের মাধ্যমে সদ্য স্নাতক সম্পন্ন করা শিক্ষার্থীরা নিজেদেরকে শিক্ষক হিসেবে গড়ে তোলার সুযোগ পাবেন। কয়েকটি ধাপের মাধ্যমে এক বছরব্যাপী চলবে এই ফোলোশিপ প্রোগাম।

এই ফেলোশিপ প্রোগ্রামে অংশগ্রহণেচ্ছু শিক্ষার্থীদের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় সিজিপিএ-৪ থাকতে হবে এবং স্নাতক পরীক্ষায় সিজিপিএ-৩.৫ অথবা ৭০ শতাংশ নম্বর থাকতে হবে। এছাড়া আইইএলটিএস পরীক্ষায় যাদের স্কোর ৭.৫ বা তদুর্ধ্ব থাকবে এবং বিভিন্ন জার্নালে প্রকাশিত গবেষণা প্রবন্ধ থাকবে তারা বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত হবেন।

‘টিচিং অ্যাপ্রেন্টিচ ফেলোশিপ’ প্রোগ্রামের আবেদন ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে এবং ২৪ অক্টোবর ২০২০ পর্যন্ত চলবে। ফেলোদের প্রাথমিক প্রশিক্ষণ শুরু হবে ১ নভেম্বর এবং শেষ হবে ৩১ ডিসেম্বর ২০২০। এরপর চূড়ান্ত প্রশিক্ষণ ও নির্বাচিত ফেলোদের নিয়ে প্রোগ্রাম চলবে ১ জানুয়ারি ২০২১ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ পর্যন্ত।

‘টিচিং অ্যাপ্রেন্টিচ ফেলোশিপ’ প্রোগ্রামটি সম্পূর্ণরূপে নেতৃত্ব বিকশিত করার প্রোগ্রাম। এক বছর মেয়াদী এই ফেলোশিফ প্রোগ্রামের মাধ্যমে একজন তরুণ শিক্ষক তার পেশাগত বিকাশ এবং শ্রেণিকক্ষের নেতৃত্ব গুণ বিকশিত করতে পারবেন। উচ্চশিক্ষার উৎকর্ষ সাধন করাই এই সময়ের প্রধান চাহিদা। এই চাহিদা পূরণ করতে পারেন একমাত্র প্রাজ্ঞ ও দক্ষ শিক্ষকগণ। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এখন উন্নতির শিখরে রয়েছে। গুণগত মানসম্পন্ন শিক্ষা প্রদান ছাড়া এই অবস্থান ধরে রাখা সম্ভব নয়। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি তাই মানসম্মত শিক্ষক তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে।

আমাদের দেশে শিক্ষক নিয়োগ হয় সাধারণত পরীক্ষার সেরা ফলের উপর ভিত্তি করে। সেরা ফলের সঙ্গে যদি প্রযুক্তিগত দক্ষতা ও নেতৃত্বগুণ যুক্ত করা যায় তাহলে তিনি হয়ে উঠবেন বিশ্বনেতা। এসব দিক বিবেচনা করেই ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি দক্ষ, প্রাজ্ঞ, মেধাবী ও পরিশ্রমী শিক্ষক নিয়োগের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

আরও বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন:https://skill.jobs/taf/index.html

পছন্দের আরো পোস্ট