সেভ ইয়ুথ বাংলাদেশের কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টার

হারুন আর রশিদ মামুন।

দেশের তরুণদের নিয়ে কাজ করা সংগঠন স্টুডেনন্টস এগেইন্সট ভায়োলেন্স এভ্রিহয়ার (সেভ ইয়ুথ) গতকাল (২ অক্টোবর ২০২০) শুক্রবার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টারের উদ্বোধন হলো। এ উপলক্ষ্যে বিকাল পাঁচটা থেকে রাট নয়টা পর্যন্ত সেভ ইয়ুথ ওয়ার্কশপ-কোর অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানটিতে মোট দুইটি অংশ ছিল। প্রথম অংশে অর্ন্তজাতিক অহিংসা দিবস (মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন) উপলক্ষ্যে সেভ ইয়ুথ বাংলাদেশ, মাইক্রো গর্ভানেন্স রিসার্চ ইনিসিয়েটিভ, ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ যৌথভাবে আয়োজন করে বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান।

আলোচনার বিষয়বস্তু ছিল,দৈনন্দিন সহিংসতা এবং শান্তিরক্ষা। উক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ড. উর্মিথাপা দত্ত, সহযোগী অধ্যাপক, মনোবিজ্ঞান বিভাগ, ইউনির্ভাসিটি অব ম্যাসাচুসেটস লোভিল, ইউএসএ, এবং ভাসু মোহন, আঞ্চলিক পরিচালক, এশিয়া প্যাসিফিক, দ্যা ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন ফর ইলেকট্রল সিস্টেমস (আইএফইএস), ওয়াশিংটন ডিসি, ইউএসএ।

এছাড়াও উক্ত আলোচনার পর বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ শিক্ষক ও গবেষকেরা উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। আলোচনার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন,দ্যা ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন ফর ইলেকট্রল সিস্টেমস (আইএফইএস)-এর বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার কান্ট্রি ডিরেক্টর সিলিয়া প্যাসিলিনা এবং আইনুল ইসলাম, ন্যাশনাল মডারেটর, সেভ ইয়ুথ-বাংলাদেশ ও সহযোগী অধ্যাপক, রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

এছাড়াও অননুষ্ঠানে দেশি-বিদেশি গবেষক, অধ্যাপক আর দেশের ১২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের চার শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় অংশে মূল ওয়ার্কশপটি অনুষ্ঠিত হয়। এখানে শুধু কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮০জন  শিক্ষার্থী ও তরুণ শিক্ষক এবং সেভ ইয়ুথ-এর কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় চ্যাপ্টারের মডারেটররা অংশ গ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, দ্যা ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন ফর ইলেকট্রল সিস্টেমস (আইএফইএস)-এর বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার কান্ট্রি ডিরেক্টর সিলিয়া প্যাসিলিনা এবং ওয়ার্কশপটি পরিচালনা করেন, আইনুল ইসলাম, ন্যাশনাল মডারেটর, সেভ ইয়ুথ-বাংলাদেশ ও সহযোগী অধ্যাপক, রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

পছন্দের আরো পোস্ট