কোভিড–১৯ ও সচেতনতা

মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ।

বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত রোগী দিন দিন বেড়েই চলেছে। একজন থেকে এক লক্ষ ছুঁই ছুঁই। হয়তো কিছুদিন পর কয়েক লাখ ছাড়াবে। জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মেনে নিরাপদে থাকা উচিত।

 

বর্তমানে দেখা যাচ্ছে যে, মানুষ নিজের স্বাস্থ্য সচেতনতা বা নিরাপত্তার চেয়ে অন্যের নিরাপত্তা নিয়ে বেশি উদ্বিগ্ন। ব্যাপারটা এমন দাঁড়িয়ে যে, আমাদের আশেপাশের কেউ স্বাস্থ্য সচেতনতা মেনে চলছে কিনা, এটা নিয়ে আমরা অনেক প্যানিক হচ্ছি। কিন্তু নিজে ব্যাক্তিজীবনে কতটুকু সচেতন, তার দিকে খেয়াল সীমিত আমাদের। আমরা অন্যের ব্যাক্তিগত জীবনকে অনেকাংশেই নিজের জীবন ভেবে থাকি। যা এক বিংশ শতাব্দীতে এসে কাম্য নয়।

 

করোনা ভাইরাসটি সামগ্রিক ব্যাপার। একা কারো পক্ষে এটা নিঃশেষ করে, দেয়া সম্ভব নয়। ফ্রন্ট লাইনার যারা আছেন, ডাক্তার, পুলিশ, সেনাবাহিনীসহ অন্যান্য সংগঠনের পাশাপাশি নিজের জায়গা থেকে সচেতন থাকতে হবে। এই অদৃশ্য পরজীবি আমাদের স্বাভাবিক জীবনকে ব্যাহত করেছে। তাই আমাদের সকলের উচিত নিজ নিজ জায়গা থেকে করোনাকে প্রতিহত করার চেষ্টা করা। অন্যের স্বাস্থ্য সচেতনতা খেয়ালের পাশাপাশি, নিজের স্বাস্থ্য সচেতনতার দিকে ও গভীর মনোযোগ দেয়া।#

পছন্দের আরো পোস্ট