বাজেটে শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করনের ঘোষণার দাবি স্বাশিপের

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনার ভয়াল থাবা থেকে শিক্ষা ব্যবস্থাকে বাঁচাতে আসন্ন বাজেটে শিক্ষা খাতে বিশেষ বরাদ্দ রাখার দাবি জানিয়েছেন স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ (স্বাশিপ)। মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে আগামী অর্থবছরের বাজেটেই শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ ঘোষণার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

সোমবার স্বাশিপ আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানানো হয়। অনুষ্ঠানে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শাহজাহান আলম সাজু। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, করোনায় শিক্ষা খাত ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সরকার সংসদ টিভি, অনলাইনের মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখলেও একটি বড় অংশ আজ এই সুযোগ থেকে বঞ্চিত রয়েছে। ইতোমধ্যে অনেক কিন্ডারগার্টেন বন্ধ হয়ে গেছে। ননএমপিও প্রতিষ্ঠানগুলো চরম অর্থ সংকটে পড়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্মচারীরা অর্থভাবে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। সামনে স্বল্প আয়ের পরিবারের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়া অত্যন্ত কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। এ অবস্থায় শিক্ষা খাতে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ না করা হলে এই খাত চরম সংকটে নিপতিত হবে।

স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসা, অনার্স-মাস্টার্সের নন এমপিও শিক্ষক, সেকায়েপ প্রকল্পের শিক্ষকসহ সকল ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আগামী বাজেটেই এমপিওভুক্ত করার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি। এছাড়া এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বাড়িভাড়া, চিকিৎসা ভাতা বৃদ্ধি, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা প্রদান, অতিদরিদ্র শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ বৃত্তি, কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকদের জন্য বিশেষ প্রণোদনা প্রদানের জন্য আসন্ন বাজেটে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দের দাবি জানিয়েছে স্বাশিপ।

এছাড়াও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক পদে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের প্যানেল করে নিয়োগদান এবং বেসরকারি শিক্ষকদের বদলি কার্যকর করা দাবি জানায় সংগঠনটি।

পছন্দের আরো পোস্ট