সকল মায়েরা সুস্থ থাকুক

আব্দুল্লাহ আল নোমান

সন্তান ভাতের আবদার করেছিল বলে আজাদের মা ১৪ বছর ভাত না খেয়ে মারা গেছেন।সন্তান কারাগারে মাটিতে শুয়েছিল বলে মা সারা জীবন ভাল বিছানায় না ঘুমিয়ে মারা গেছেন।মায়েরা এমন হয়।পৃথিবীর  সব মা এরকম হয়।ভালো থাকুক তারা সারা জীবন। সুস্থ থাকুক আমরণ।
‘মা’ এত স্বল্প পরিসরের একটা শব্দের মহিমা বলে বুঝানোর মত নয়।যিনি সন্তানকে গর্ভধারণ  থেকে শুরু করে সারা জীবন তার আদর যত্নে আগলে রাখেন।তিনিই আমাদের মা।”মা” দিবস কি সেটা আমার মা জানেনা।সন্তানের লালন পালন করতে করতে এই খবর রাখার সময় কোথায় তাঁর?জানার দরকারও নাই।আর আমার কাছে তো মা দিবস প্রতিদিন। প্রতিদিন, প্রতিক্ষণ আমি মাকে ডাকি।মায়ের মুখের হাসিটাই আমার কাছে বড় সম্পদ।দুনিয়ার সকল মায়ের প্রতি আমার শ্রদ্ধা।
মা!
একটি শব্দমাত্র। অস্তিত্বের গভীর গোপন নিবিড়  থেকে ডেকে ওঠে পরাণের ঘুঘু… উদাস দুপুরে, বর্ষার দিনে অথবা জোৎস্নাঝরা গভীর রাতে। ঢেকিতে ধান ভাঙার কুরুৎ  কুরুৎ শব্দের উৎসই তো আমাদের হাজার বছরের মায়ের প্রতিধ্বনি।  মায়েরা আমাদের জীবনে কতো অনুষঙ্গে, কতো নিবেদনে, কতো প্রেরণায় আছেন উৎসের আধার হয়ে। মা আছেন বলেই আমি আছি। আমরা আছি। কোটি কোটি মানুষ ও প্রাণী আছে, আছি।
মায়েদের পায়ের নিচে বেহেশত থাকে কিনা আমি জানি না। কিন্তু মায়েদের পায়ে যে ঘ্রাণ, যে ঘাসফুলের মহিমা থাকে, পৃথিবীর মানুষেরা চিরকাল এই সব মায়েদের জন্য সেই ফুলগন্ধ নিয়ে বাঁচে। আমার মা, আমাদের মা, ফিলিস্তিনের সন্তান হারানো মা, কাশ্মিরে সন্তান হারানো মা, সিরিয়ায় সন্তান হারানো মা, মিয়ানমারে সন্তান হারানো মা- জগতের সকল মায়ের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা।  সকল মায়েরা, আপনারা এই মা দিবসে  কেবল নয়, প্রতিটি দিন ভালো থাকুন।
আজ এই ‘মা’ দিবসে সেই মাকে সালাম যিনি রোগ-শোকে জঠরেই বাচ্চা হারিয়েছেন। সেই মাকে সালাম, যারা আসলে আমাদের কন্যা হয়েও মায়ের জায়গায় আছেন। সেই মাকে সালাম, যিনি বিশেষ শিশুর অধিকারী। সেই মাকে সালাম, যার সন্তান আজ মানুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। সেই মাকে সালাম, যার সন্তানেরা মানুষের জন্য নিজের জীবন বিলায়। সেই মাকে সালাম, যার সন্তান মুক্তিযোদ্ধা। সালাম ‘মা’ জননী। তোমরাই এ পৃথিবীকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছো।’
পছন্দের আরো পোস্ট