হ্যান্ড স্যানিটাইজার,সাবান ও মাস্ক দিলো ড্যাফোডিল

নিজস্ব প্রতিবেদক।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে এবং শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শতভাগ সুরক্ষা নিশ্চিত করতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে সম্পূর্ন বিনামূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক বিতরণ এবং নিয়মিত থার্মাল চেক আপের ব্যবস্থা করছে বিশ্ববিদ্যালয়টির ফার্মেসি, নিউট্রিশন অ্যান্ড ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং ও টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ।

আজ রোববার (১৬ মার্চ) আশুলিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে এবং ধানমন্ডিতে মেইন ক্যাম্পাসে এসব হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সপ ও মাস্ক বিতরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাষ্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মোঃ সবুর খান, উপাচার্য প্রফেসর ড, ইউসুফ এম ইসলাম, স্থায়ী ক্যাম্পাসের ডীন প্রফেসর ড. মোস্তফা কামাল, নিউট্রিশন অ্যান্ড ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. বেল্লাল হোসেন, সহযোগী প্রধান ড. আমির আহমেদ ও ফার্মেসি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মুনির উদ্দিন আহমেদ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপাচার্য প্রফেসর ড, ইউসুফ এম ইসলাম বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা আমাদের কাছে সন্তানতুল্য। তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা বিবেচনা করেই আমরা আমাদের ল্যাবরেটরিতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সপ এবং মাস্ক তৈরি করার উদ্যোগ নিই। কারণ প্রচুর চাহিদার কারণে বাজারে ইতিমধ্যেই হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্কের সংকট তৈরি হয়েছে। আমরা চাইনা, আমাদের কোনো শিক্ষার্থী হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্কের অভাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হোক।

প্রাথমিক অবস্থায় সীমিত সংখ্যক হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রস্তুত করা হলেও ক্রমান্বয়ে আরও হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সপ ও মাস্ক প্রস্তুত করা হবে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তাদের মাঝে বিতরণের পাশাপাশি একাডেমিক সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটির আওতায় আশ-পাশের এলাকার মসজিদ, পাবলিক টয়লেট, বাস স্টপেজ ও জনগুরুত্বপূর্ন স্থান সমূহে সরবরাহ নিশ্চিত করা হবে বলে জানান প্রফেসর ড, ইউসুফ এম ইসলাম ।

উল্লেখ্য, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষার্থীদের যাবতীয় মেডিকেল সুবিধা প্রদানের জন্য সার্বক্ষণিক বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এবং অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। শুধু তাই নয়, সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বিশ্ববিদ্যালয়ে সমস্ত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীর স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রতিটি টয়লেটে হ্যান্ড ওয়াস ও হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কর্তৃপক্ষ।

এর আগে গত ২রা মার্চ পাবলিক হেলথ বিভাগের আয়োজনে ‘করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ও প্রতিরোধ’ শীর্ষক এক সেমিনার বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭১ মিলনায়তনে আয়োজন করা হয় যেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিওলোজি ডিজিজ কনট্রোল অ্যান্ড রিসার্চের পরিচালক অধ্যাপক ড. মিরজাদি সাবরিনা ফ্লোরা। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিওলোজি ডিজিজ কনট্রোল অ্যান্ড রিসার্চের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এ এস এম আলমগীর।

পছন্দের আরো পোস্ট