ইবিতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ বিভ্রান্তি নিয়ে কেন্দ্রের সতর্কবার্তা

টি এইচ জায়িম,ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) বঙ্গবন্ধু পরিষদের কেন্দ্রঘোষিত কমিটির বাইরে গিয়ে ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন’ নামে নতুন সংগঠনের কার্যক্রমে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে পরিষদে। কেন্দ্রের অনুমোদন ছাড়াই গঠিত এ সংগঠনের কার্যক্রম বন্ধের জন্য অনুরোধ করেছে কেন্দ্রীয় পরিষদ। এছাড়া এ কার্যক্রম বন্ধ না করলে উদ্ভুত যেকোন পরিস্থতির দায় তাদেরকেই নিতে হবে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছে পরিষদ। বৃহস্পতিবার সংগঠনটির কেন্দ্রীয় পরিষদের পক্ষ থেকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ সতর্কবার্তা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এস এ মালেক গত ৩১ ডিসেম্বর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করেন। কমিটিতে আইসিটি বিভাগের অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমানকে সভাপতি ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যপক ড. মাহবুবুল আরফিনকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। অনুমােদনের পর থেকে উক্ত কমিটি যথারীতি কেন্দ্রীয় কমিটির পরামর্শ অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। কমিটি ঘোষনার ‘ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন’ নামে একটি সংগঠন হঠাৎ করে তৎপরতা শুরু করে। পরে সংগঠনটি ‘ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ (শিক্ষক ইউনিট) নামের আরেকটি সংগঠন সৃষ্টি করে তার জন্য নির্বাচন ঘোষণা করেছে। কে বা কারা, কি উদ্দেশ্যে এ ধরনের কমিটি গঠন করেছে ও তৎপরতা চালাচ্ছে বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি তা অবগত নয় বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

অনুমোদিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি থাকার পরেও বঙ্গবন্ধু পরিষদের নামে নতুন সংগঠনের কার্যক্রম হীন উদ্দেশ্য ও ব্যক্তি বা মহল বিশেষের স্বার্থ চরিতার্থ করার লক্ষ্যে বলে মনে করে কেন্দ্রীয় পরিষদ। এছাড়াও বঙ্গবন্ধু পরিষদ (শিক্ষক ইউনিট) নামে দেশে পরিষদের কোনো শাখা নেই তাই এ ধরণের কোনো সংগঠনকে কেন্দ্রীয় পরিষদ স্বীকৃতি দেয়না বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশনকে এ ধরনের তৎপরতা থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করে কেন্দ্রীয় পরিষদ। অন্যথায় উদ্ভুত যে কোন পরিস্থিতির জন্য নির্বাচন কমিশন ও এর সাথে জড়িতদেরকেই দায়ী থাকতে হবে বলে উল্লেখ করা হয়।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু পরিষদ (শিক্ষক) নামক নতুন সংগঠনের পক্ষ থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার বিষয়টি জানানো হয়। তফসিল অনুযায়ী আগামী ১১ মার্চ তাদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

পছন্দের আরো পোস্ট