জাবিসাস বর্ষসেরা সাংবাদিকতা পুরস্কার পেলেন যারা

জাবি প্রতিনিধি।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (জাবিসাস) ৩৯তম কার্যকরী কমিটির অভিষেক, বর্ষসেরা সাংবাদিকতা পুরস্কার ও বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমিতির নতুন কমিটির সভাপতি হিসেবে মো. আসাদুজ্জামান (ডেইলি স্টার) ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মো. মাহবুব আলম (ইনকিলাব) দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম প্রধান অতিথি এবং জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক যুগান্তর এর সম্পাদক সাইফুল ইসলাম প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন। জাবিসাসের প্রাক্তন সভাপতি প্লাবন তারিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম, বিবিসির ওয়ার্ল্ড সার্ভিসের সিনিয়র প্রযোজক মাসুদ হাসান খান, জাবিসাস এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সভাপতি সৈয়দ শহীদুল হক চৌধুরী ও জাবিসাসের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সোহেল আহমেদ।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম প্রধান অতিথির ভাষণে বলেন, সাংবাদিকতা একটি ঝুঁকিপূর্ণ পেশা। তদুপরি ক্যাম্পাসের সাংবাদিকতা খুবই সংবেদনশীল। তবে এই পেশায় যারা আসেন তারা তা জেনেই আসেন। তিনি বলেন, ভিত্তিহীন, মিথ্যা ও বানোয়াট সাংবাদিকতা কোন প্রতিষ্ঠান কিংবা ব্যক্তির ভাবমূর্তি ধুলোয় মিশিয়ে দিতে পারে। এজন্য আমরা সততার সাথে সংবাদ পরিবেশনের আহবান জানাই।

এবার অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার জন্য ডেইলি স্টারের সংবাদদাতা মো. আসাদুজ্জামান ১ম এবং দি ইন্ডিপেনডেন্ট পত্রিকার প্লাবন তারিক ২য় পুরস্কার লাভ করেছেন। বাংলাদেশ প্রতিদিনের সংবাদদাতা শরীফুল ইসলাম সীমান্ত ও যুগান্তরের এম ইউসুফ যৌথভাবে ৩য় পুরস্কার লাভ করেছেন। তৌহিদুল ইসলাম ও আরিফুল ইসলাম আদিব যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ বাংলা ফিচার এবং আবদুল্লাহ আল মামুন ও তারেক আজিজ যৌথভাবে ইংরেজি ফিচার লেখক হিসেবে পুরস্কৃত হন। উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম তাদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। এছাড়া ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ, প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এ মামুনসহ আরও অনেক ছাত্র-শিক্ষক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

পছন্দের আরো পোস্ট