এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক বনভোজন

নিজস্ব প্রতিবেদক।

গত (১৪ ফেব্রুয়ারি,২০২০) বাংলাদেশের একমাত্র গবেষণা ভিত্তিক বেসরকারি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ (ইবিএইউবি) এর নিজস্ব ক্যাম্পাস (আমনুরা ঝিলিম) প্রাঙ্গনে বর্ণাঢ্য আয়োজনে এক উৎসব মুখর পরিবেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক বনভোজন এবং নবীন বরণ অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইবিএইউবি-এর বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর সম্মানিত সদস্য এবং এক্সিম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এবিএম রাশেদুল হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. মোঃ আব্দুল মান্নান (যুগ্ম সচিব), অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার, রাজশাহী বিভাগ এবং ড. মোঃ শামীমুল হাসান, ট্রেজারার, ইবিএইউবি।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন অনুষ্ঠানের উদযাপন কমিটির আহব্বায়ক এবং কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ উন্নয়ন অনুষদের প্রধান ড. আশরাফুল আরিফ। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যের শুরুতে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, যিনি না থাকলে আজকের এই সোনার বাংলা হতো না, সেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-কে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। এরপর তিনি বিওটি-এর পক্ষ থেকে নবীন শিক্ষার্থীদের ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করেন।

তিনি বলেন নবীন শিক্ষার্থীরাই একদিন দেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে দেশপ্রেমের চেতনায় উদ্ধুদ্ধ হয়ে নৈতিকতা সম্পন্ন ভালো মানুষ হওয়ার আহবান জানান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের নিয়ামানুবর্তীতা দেখে তিনি অভিভূত হন এবং শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় মনোনিবেশ করে সৎ নাগরিক হিসেবে দেশের সেবায় নিজেদেরকে গড়ে তোলার আহব্বান জনান।

পবিত্র কোরআন তেলওয়াত এর মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরুর পর বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থীরা নবাগত শিক্ষার্থীদেরকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়। প্রাধন অতিথি, বিষেশ অতিথি, সম্মানিত অতিথি ও সভাপতিকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এরপর প্রধান অতিথি ও সভাপতি অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের “জার্মপ্লাজম সেন্টার” এর শুভ উদ্বোধন করেন। সেই সাথে জমকালো আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় বার্ষিক বনভোজন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিচালনা ও অংশগ্রহনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের ডীন ড. মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন; ওছঅঈ এর পরিচালক মোঃ মকবুল হোসেন; রেজিস্ট্রার ড. মোঃ সোহেল আল বেরুনী; ব্যবসায় অনুষদের প্রধান ড. মোস্তফা মাহমুদ হাসান; আইন অনুষদের প্রধান এস.এম. শহীদুল ইসলাম ও বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীবৃন্দ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এবিএম রাশেদুল হাসান গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব মোঃ নজরুল ইসলাম মজুমদার- কে গভীর শ্রদ্ধার সাথে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জে একটি গবেষণাধর্মী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করায় তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তাঁর বক্তব্যে তিনি সকল শিক্ষার্থীদের সৎ ও যোগ্য নাগরিক হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করার পরামর্শদেন। মাদক, জঙ্গিবাদ ও সহিংসতাকে “না” বলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে সোনার বাংলা গড়ে তোলতে সকলকে সম্মলিত ভাবে কাজ করার আহব্বান জানান।

তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাবাসীর নিকট সহযোগিতা কামনা করেন। পরিশেষে তিনি উক্ত অনুষ্ঠানের কমিটির সকলকে, আমন্ত্রিত অতিথির বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষ, স্কুলের প্রধান শিক্ষক, প্রিন্ট মিডিয়া, সাংবাদিকবৃন্দ এবং সূধীজনকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

পছন্দের আরো পোস্ট