ইরানে মুজিববর্ষ পালিত হবে

জাবি প্রতিনিধি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শতবর্ষ উপলক্ষে ইসলামিক রিপাবলিক অব ইরানে মুজিববর্ষ পালিত হবে। আজ ইরানি কালচারাল কাউন্সিলর Seyed Hassan Sehat জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের সাথে এক সৌজন্য সাক্ষাতকালে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও ইরানের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। তিনি বলেন, ইরানের শিল্প-সস্কৃতির সাথে বাংলাদেশের জনগণ গভীরভাবে সম্পৃক্ত। ইরানের কবি ফেরদৌসী, শেখ সাদী, হাফিজ, ওমর খৈয়াম, আহম্মেদ শামলুর কাব্যকথা বাংলাদেশে পঠিত হয়, এটা ইরানি জনগণের জন্য খুবই গর্বের বিষয়। কাউন্সিলর Seyed Hassan Sehat আরও বলেন, মুজিববর্ষকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য আমরা বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ফার্সি ভাষা শিক্ষা চালু করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছি। এই অনুরোধে চারটি বিশ্ববিদ্যালয় সাড়া দিয়েছে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ফার্সী ভাষা শিক্ষা চালুর অনুরোধ নিয়ে আমি এসেছি। একই সঙ্গে আপনাকে ইরানের সুন্দর ও বিখ্যাত স্থানসমূহ পরিদর্শনের সাদর আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসালাম ইরানি কালচারাল কাউন্সিলরকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, আপনার সৌজন্য সাক্ষাতের মধ্যদিয়ে দুদেশের বন্ধুত্বপূর্ন সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে। উপাচার্র্য আরও বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পুনরায় ফার্সি ভাষা শিক্ষা চালুর সম্ভাবনা নিয়ে আমি অবশ্যই চিন্তা-ভাবনা করবো। তিনি বলেন, ফার্সি ভাষা অধ্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা ইরানের সমৃদ্ধ শিক্ষা, সস্কৃতি ও সাহিত্যের সাথে পরিচিত হবার সুযোগ পাবে। ইরান সফরের আমন্ত্রণের পরিপ্রেক্ষিতে উপাচার্য বলেন, আপনার আমন্ত্রণের জন্য অশেষ ধন্যবাদ। আমি সময় ও সুযোগ পেলে আপনার আমন্ত্রণ রক্ষা করার চেষ্টা করবো। আমি আশা করি শিক্ষা-গবেষণা ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

সৌজন্য সাক্ষাতকালে ইরানি দূতাবাসের ফিল্ম ও জনসংযোগ বিভাগের ডেপুটি ডাইরেক্টর মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

পছন্দের আরো পোস্ট