সংকটে আমুরবুনিয়া বেলায়েতিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

মেহেদী হাসান লিপন,মোরেলগঞ্জ(বাগেরহাট) ।

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম সুন্দরবনের আমুরবুনিয়া ফরেষ্ট ক্যাম্প সংলগ্ন ১৬৬ নং আমুরবুনিয়া বেলায়েতিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি চলছে নানা সংকটে। মাথার উপর টিনের ছাউনি,টিনের বেড়া, আসবাবপত্র সহ নানবিধ সমস্যার কারনে পাঠ কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। শিক্ষার যথোপযুক্ত পরিবেশ না থাকায় শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়া বৃদ্ধি পাচ্ছে।

নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের সুন্দরবন সংলগ্ন আমুরবুনিয়া গ্রাম। গ্রামটির মাঝ থেকে বয়ে গেছে ভোলা নদী নামে ছোট একটি খাল। খালের ওপারে সুন্দরবন। এপারে রয়েছে আমুরবুনিয়া গ্রাম। এ গ্রামের আমুরবুনিয়া ফরেষ্ট ক্যাম্প সংলগ্ন ১৬৬ নং আমুরবুনিয়া বেলায়েতিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। ১৯৭১ সালে এ স্কুলটি স্থাপিত হয়। প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই একটি ভবনে চলতো শিক্ষার্থীদের পাঠদান। ২০১৯ সালে পুরাতন ভবনটি ভেঙ্গে নতুন ভবনে বরাদ্ধ হয় এবং জুন মাসে মাটি খুড়ে ফেলে রাখে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। বর্তমানে কাজ বন্ধ। বিদ্যালয়ে মাঠের মধ্যে মাটির স্তুপ, মাটি খোড়া। এ বিদ্যালয়ে কাগজে কলমে শিক্ষার্থী রয়েছে ১১১ জন।

সরেজমিনে ২৯ জানুয়ারি ২য় শিপটের ক্লাশে ৩য় শ্রেণীতে ৫, ৪র্থ শ্রেনীতে ৭ ও ৫ম শ্রেণীতে ৬ জন শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিল। শিক্ষকের ৫টি পদের ১টি পদ শূন্য। নিয়মিত রয়েছে ৪জন শিক্ষক। ঐদিন প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন অফিসিয়ার কাজের জন্য বিদ্যালয়ে ছিলেন না। সহকারি শিক্ষক শাহাজাহান হাওলাদার রয়েছেন ডেপুটেশনে, সহকারি শিক্ষক প্রধান শিক্ষকের স্ত্রী ইরানী আক্তার রয়েছেন বিষয় ভিত্তিক প্রশিক্ষনে। উপস্থিত শুধুমাত্র সহকারি শিক্ষক সাইদুর রহমান। তিনি একাই ৩টি ক্লাশে সামলাচ্ছিলেন। শিক্ষকের প্রতি স্থানীয় অভিভাবকদের রয়েছে নানামুখি ক্ষোভ। তারা বলেন এভাবে একটি বিদ্যালয়ে চলতে পারেনা।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. জালাল উদ্দিন খান বলেন, প্রত্যন্ত অঞ্চলে অনেক বিদ্যালয়ই শিক্ষক অনিয়মিত, অবকাঠামো নাজুক, শিক্ষক সংকট সর্ম্পকে তিনি অবহিত আছেন। তবে প্রতিটি বিদ্যালয় সরেজমিনে এখন পর্যন্ত তিনি যেতে পারেননি। শিঘ্রই এসব সমস্যার সমাধান হবে বলে তিনি জানান #

পছন্দের আরো পোস্ট