সেন্টার অফ এক্সেলেন্স ফর হসপিটালিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক।

বাংলাদেশের টুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যনেজমেন্ট খাতের উন্নয়ন ও বিকাশে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা পালন করবে ‘ড্যাফোডিল অক্সফোর্ড সেন্টার অফ এক্সেলেন্স ফর হসপিটালিটি’। আগামী ২-৪ এপ্রিল ২০২০ ঢাকায় “ডিশ বাংলাদেশ” (ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল সিম্পোসিয়াম অন হসপিটালিিিট) আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছে ‘ড্যাফোডিল অক্সফোর্ড সেন্টার অফ এক্সেলেন্স ফর হসপিটালিটি’।

গতকাল (২৯ জানুয়ারি ২০২০) ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম মাহাবুব-উল-হক মজুমদার এর সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরে লিখিত বক্তব্য রাখেন, ড্যাফোডিল পরিবারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নূরুজ্জামান। নংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদেও বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিয়ে বক্তব্য রাখেণ অক্সফোর্ড স্কুল অক হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট এর সাবেক চেয়ারম্যান ও অক্সফোর্ড কালচারারল কালেক্টিভ এর চেয়ারম্যান প্রফেসর ডোনাল্ড স্লোয়ান, অক্সফোর্ড কালচারারল কালেক্টিভ এর পরামর্শক মোহাম্মদ আজিজ উর রহমান ও টুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যনেজমেন্ট বিভাগের প্রধান মাহাবুব পারভেজ।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বাংলাদেশের মানুষ স্বভাবতঃই অত্যন্ত অতিথিপরায়ন এবং সারা বিশ্বে এর স্বীকৃতিও রয়েছে। আমাদের দেশের অনেক শেফই বিশ্বসেরা শেফদের তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন। কিন্ত তা সত্ত্বেও আমাদের পরিবেশনা তত সুন্দর বা মানসম্মত হয় না। পরিবশনার ক্ষেত্রে আমাদের যথেষ্ট পেশাদারিত্বের অভার রয়েছে যা বিশ্বমানের হসপিটালিটির ক্ষেত্রে একটি বড় বাধা এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিশেষ করে চাকরি বাজারে আমাদের পিছিয়ে রাখছে।

হসপিটালিটি শিল্পের এ সম্ভাবনাকে বিশ্বদরবারে তুলে ধরা এবং হসপিটালিটির ক্ষেত্রে একটি ঊীপবষষবহপব বা উৎকর্ষতা অর্জনকে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি তথা ড্যাফোডিল পরিবার একটি আন্দোলন হিসেবে নিয়েছে এবং জাতিসংঘ ঘোষিত এসডিজি ২০২০-২০৩০ তে টুরিজম ও হসপিটালিটি খাতে যে লক্ষ্যমাত্রা এবং টুরিজম ও হসপিটালিটি নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের যে মাস্টার প্ল্যান রয়েছে অর্থ্যাৎ জাতীয় অর্থনীতিতে তৃতীয় শ্রেষ্ঠ অবদানকারী হিসেবে টুরিজম ও হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট খাতকে নিয়ে আসা এবং একই সাথে সামগ্রীক ক্ষেত্রে একটি গতিশীলতা আনয়ন করতেই লন্ডনের ‘দি অক্সফোর্ড কালচারারল কালেক্টিভ’ এবং ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশণাল ইউনিভার্সিটির টুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যনেজমেন্ট বিভাগের উদ্যোগে ‘ড্যাফোডিল অক্সফোর্ড সেন্টার অফ এক্সেলেন্স ফর হসপিটালিটি’ গঠন করা হয়েছে। টুরিজম ও হসপিটালিটি খাতকে নিয়ে আমাদের যে আন্দোলন, এ প্রতিষ্ঠানকে নিয়েই আগামী ২-৪ এপ্রিল ২০২০ ঢাকায় ‘ড্যাফোডিল অক্সফোর্ড সেন্টার অফ এক্সেলেন্স ফর হসপিটালিটি’ এর উদ্যোগে আন্তর্জাতিক “ডিশ বাংলাদেশ ২০২০”(‘ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনালসিম্পোসিয়াম অন হসপিটালিিিট) আয়োজনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

ডিশ বাংলাদেশ ২০২০ আয়োজনে অনেকগুলি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানকে পার্টনার হিসেবে নেয়া হয়েছে এবং দেশী স্ট্যাকহোল্ডারদেরকে এর সাথে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। বিশেষ করে অক্সফোর্ড কালচারারল কালেক্টিভ এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডোনাল্ড স্লোয়ান এবং লন্ডন প্রবাসী বাংলাদেশী এন আর বি হসপিটালিটি বিশেষজ্ঞ আজিজ উর রহমান কে সাথে নেয়া হয়েছে এ সিপোজিয়াম অর্গানাইজ করতে। এ সিম্পোজিয়ামে বেশ কয়েকটি টাইটেল থাকবে এবং এ টাইটেলগুলো যারা রিসোর্স পারসন হিসেবে উপস্থাপন করবেন তারাও আন্তর্জাতক খ্যাতিসম্পন্ন বিশিষ্ট টুরিজম ও হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট ব্যক্তিত্ব।

টুরিজম ও হসপিটালিটি ম্যানজমেন্ট একটি উচু মানের পেশা যা বিশ্ব স্বীকৃত এবং বিশ্বের যে কোন দেশেই এ পেশার যথেষ্ট কাজের সুযোগ রয়েছে এ সিম্পোজিয়ামের মাধ্যমে দেশের যুব সমাজকে সে মেসেজ দিতে চাচ্ছেন বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে জানান হয়।

পছন্দের আরো পোস্ট