রাবিতে বাংলাদেশ-চীন যৌথ গবেষণা ইনস্টিটিউটের যাত্রা

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে চীনের হুয়াজং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে এক যৌথ গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। আজ শনিবার দুপুরে ড. ওয়াজেদ মিয়া একাডেমিক ভবনে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে ’সিনো-বাংলাদেশ বায়োইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ ইনস্টিটিউট’-এর উদ্বোধন করেন রাবি উপাচার্য প্রফেসর এম আব্দুস সোবহান ও সফরকারী হুয়াজং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-প্রেসিডেন্ট ইয়াও জিয়াংলিন। সেখানে অন্যদের মধ্যে রাবি উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা, উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী মো. জাকারিয়া, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান আল-আরিফ, জীব ও ভূ-বিজ্ঞান অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর এম নজরুল ইসলাম, কৃষি অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর সালেহা জেসমিন, বিজ্ঞান অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর এম খলিলুর রহমান খান, প্রকৌশল অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর মো. একরামুল হামিদ, ইনস্টিটিউট বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী প্রফেসর এম মনজুর হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট শিক্ষক ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রাবি সফরকারী হুয়াজং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয় সদস্যবিশিষ্ট প্রতিনিধিদল শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসন ভবনের কনফারেন্স রুমে স্বাগতিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিবৃন্দের সাথে আলোচনায় মিলিত হন। এতে রাবি উপাচার্য প্রফেসর এম আব্দুস সোবহান স্বাগত বক্তব্য রাখেন এবং উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা এবং উপ-উপাচার্য ও সংশ্ল্ষ্টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি প্রফেসর চৌধুরী মো. জাকারিয়া শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। সেখানে ’সিনো-বাংলাদেশ বায়োইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ ইনস্টিটিউট’ বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী প্রফেসর এম মনজুর হোসেন এই ইনস্টিটিউটের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করেন। কমিটির অতিরিক্ত প্রধান সমন্বয়কারী জীব ও ভূ-বিজ্ঞান অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর এম নজরুল ইসলাম সেখানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এসময় অন্যদের মধ্যে জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক প্রফেসর প্রভাষ কুমার কর্মকার, ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. আবুল কালাম আজাদ, ড. এফ এম আলী হায়দারসহ সংশ্ষ্টি শিক্ষক ও কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার প্রফেসর এম এ বারী ইনস্টিটিউট ও মতবিনিময় অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন।

বাংলাদেশ-চীন যৌথ গবেষণা ইনস্টিটিউটআলোচনাকালে উপাচার্য এই ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ ও চীন তথা এই অঞ্চলে সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে গবেষণা ও উন্নয়নে নব দিগন্তের সূচনা করবে, যা সামগ্রিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। প্রতিনিধিদল চার দিনব্যাপী এই সফরের দ্বিতীয় দিনে আগামীকাল এক লেকচার সিরিজে অংশ নিবে। সেখানে ’চাইনিজ বেল্ট এন্ড রোড ইনিসিয়েটিভ: বায়োইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ অপরটুনিটিস বিটুইন বাংলাদেশ এন্ড চায়না’ শিরোনামে প্রবন্ধসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে চারটি প্রবন্ধ উপস্থাপনের বিষয় নির্ধারিত রয়েছে।

সফরকারী হুয়াজং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিদলে আছেন, কলেজ অব লাইফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজির ভাইস-ডিন ঝাও জিয়াওজিয়ান, ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি ডেভেলপমেন্টের ভাইস-ডিন ঝাও হুই, কলেজ অব লাইফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজির প্রফেসর কাও এয়াংরং ও পেং নান, ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি ডেভেলপমেন্টের ডিরেক্টর চেন লিউ ও কলেজ অব প্লান্ট সায়েন্সের পোস্ট ডক্টরাল ফেলো হাফিজুর রহমান।প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে রাবি উপাচার্যের নেতৃত্বে ৬ সদস্যবিশিষ্ট ্প্রতিনিধিদল হুয়াজং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সফর করে । সেসময় এই ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার বিষয়ে আলোচনা হয়।

পছন্দের আরো পোস্ট