কুয়েটে ইআইসিটি শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

কুয়েট প্রতিনিধি।

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট) আজ (২০ ডিসেম্বর) শুক্রবার তিন দিনব্যাপী ৪র্থ “ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন ইলেকট্রিক্যাল ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি (ইআইসিটি ২০১৯)” শীর্ষক আন্তর্জাতিক কনফারেন্স শুরু হয়েছে। ইইই অনুষদের আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার সেন্টারে সকাল ১০টায় কনফারেন্সটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি ডিভিশনের সিনিয়র সচিব জনাব এন. এম. জিয়াউল আলম পিএএ এবং প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুয়েটের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. কাজী সাজ্জাদ হোসেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, “তথ্য প্রযুক্তি এবং ইলেকট্রনিক্সের অগ্রযাত্রার জন্য ইআইসিটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। বর্তমান সরকার প্রযুক্তির উপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব প্রদান করছে, এক্ষত্রে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন”। প্রফেসর ড. কাজী সাজ্জাদ হোসেন বলেন, “গবেষকদের জন্য এ ধরনের কনফারেন্স নতুন দিগন্তের সৃষ্টি করবে। টেকসই উন্নয়ন এবং আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য গবেষনার কোন বিকল্প নেই”। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইইইই বাংলাদেশের চেয়ার প্রফেসর ড. শেলিয়া শাহনেওয়াজ। আয়োজক কমিটির সভাপতি ও ইইই অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মহিউদ্দিন আহমাদ এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আয়োজক কমিটির সম্পাদক প্রফেসর ড. মনির হোসেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে কী-নোট সেশনে পেপার উপস্থাপন করেন ইউএসএ’র ফ্লোরিডা পলিটেকনিক ইউনিভার্সিটির প্রফেসর ড. মুহাম্মদ এইচ. রশীদ, জাপানের ইউনিভার্সিটি অফ ইয়ামানাশি এর প্রফেসর ড. মাশানরী হানাওয়া এবং ইউএসএ’র দিলাওয়ারা স্টেট ইউনিভার্সিটি এর প্রফেসর ড. মুক্তি এম রানা।

তিন দিনব্যাপী সম্মেলনে বিশ্বের ১৮ টি দেশ থেকে ৩৭৪ টি গবেষণা পেপার থেকে বাছাইকৃত ১১৭ টি টেকনিক্যাল পেপার মোট ২০ টি টেকনিক্যাল সেশনে উপস্থাপন করা হবে। এছাড়া কনফারেন্সে ৬ টি কী-নোট সেশন ও ২টি টেকনিক্যাল ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনে দেশ-বিদেশী গবেষক, শিক্ষক, দেশের স্বনামধন্য প্রকৌশলী ও প্রযুক্তিবিদগণসহ অন্যান্যরা অংশগ্রহন করছেন।

পছন্দের আরো পোস্ট