ড্যাফোডিলে‘সিআইএস ডে-২০১৯’ উদযাপিত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম (সিআইএস) বিভাগের আয়োজনে দিনব্যাপী ‘সিআইএস ডে-২০১৯’ উদযাপিত হয়েছে। গত সোমবার (১৪ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭১ মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ‘সিআইএস ডে’র উদ্বোধন করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মো. সবুর খান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম এবং উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এস এম মাহবুব উল হক মজুমদার।

এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. সৈয়দ আকতার হোসেন, সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান ড. তৌহিদ ভূঁইয়া, স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক সৈয়দ মিজানুর রহমান, সিআইএস বিভাগের প্রধান মো. সারওয়ার হোসেন মোল্লা প্রমুখ।

দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানে ছিল অ্যালামনাই টক, সেমিনার, প্রজেক্ট প্রদর্শনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে শেষ সেমিস্টারের শিক্ষার্থীরা অটোমেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, অটো পার্টস ই-শপ, হোস্টেল ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, বেকারী ফুডস হাট, স্কাই টর্চ হোটেল, হেল্পিং হ্যান্ডসহ ১১টি প্রজেক্ট উপস্থাপন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মো. সবুর খান বলেন, শুধু নিজের প্রতিভার বিকাশ ঘটালেই চলবে না বরং নিজের প্রতিভাকে সঠিক স্থানে সঠিকভাবে উপস্থাপন করাও শিখতে হবে। কারণ বর্তমান সময়টি তীব্র প্রতিযোগিতার যুগ এবং সমগ্র বিশ্বই প্রতিযোগিতার ক্ষেত্র। এজন্য শিক্ষার্থীদেরকে সারা পৃথিবীর কাছ থেকে জ্ঞানার্জনে পাশাপাশি যথাযথভাবে নিজের অর্জিত জ্ঞান ও দক্ষতা উপস্থাপনের কৌশলও শিখতে হবে বলে মন্তব্য করেন ড. মো. সবুর খান।

এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে বলেন, প্রযুক্তির উৎকর্ষকতার এই যুগে নিজেকে প্রকাশ করার নানা মাধ্যম রয়েছে। এ রকমই এক মাধ্যম হচ্ছে গুগল সাইট। গুগল সাইটে বিনামূল্যে নিজের নামে ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। ড. মো. সবুর খান প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে নিজের ওয়েবসাইট তৈরি করার আহ্বান জানান এবং সেই ওয়েবসাইটে নিজের ভিডিও রেজুমি, প্রজেক্ট, অ্যাসাইনমেন্ট ইত্যাদি রাখার পরামর্শ দেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম বলেন, পৃথিবীতে প্রতিটি মানুষই আলাদা। প্রত্যেকেরই রয়েছে আলাদা আলাদা প্রভিতা। সেই প্রতিভাকে আবিষ্কার করে যথাযথভাবে পরিচর্যা করতে পারলেই সফল হওয়া যায়। এসময় তিনি শিক্ষার্থীদেরকে নিজের অন্তর্শক্তিকে আবিষ্কার করার আহ্বান জানান।

অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম আরও বলেন, বর্তমান সময়কে বলা হয় তথ্য-প্রযুক্তির যুগ। আর সিআইএস-এর কাজ হচ্ছে তথ্য-প্রযুক্তি নিয়ে। এখন যে যত বেশি ডেটা অ্যনালাসিস, সেটা মাইনিং, সফট ডেটা, বিগ ডেটা ইত্যাদিতে দক্ষ, চাকরির বাজারে তার চাহিদা তত বেশি। সুতরাং সিআইএস শিক্ষার্থীদের চাকরি নিয়ে দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই বলে তিনি মন্তব্য করেন।

পছন্দের আরো পোস্ট