কবিতা। সুপ্ত বাসনা

। শ্রীপর্ণা ব্যাণার্জী ।

তোমার সাথে হঠাৎ দেখা ,
নিঃসন্দেহে একটা বিরাট চমক !!
কিন্ত ঠিক যে চমকটা আমরা চাই,
সত্যি সেটা পাই কি ?
অনেক সুপ্ত বাসনা মনে
সযত্নে পাল তোলে, কিন্তু
সেই আবেগতাড়িত পালটা
যখন ছিঁড়ে টুকরো
টুকরো হয়ে যায়, তখন?
সেই যন্ত্রনা তো কেউ
ভাগ করে নিতে আসেনা!

সাগরধারে দুজনে কত আবেগমাখা
নুড়ি কুড়ালাম ।
কত সুখের নুড়ি সাজালাম।
তখন প্রিয়া তো জানেনা, যে
তারই জন্য অপেক্ষা করছে
ছেঁড়া আসন !!
যেখানে তার সাধের স্বপ্নগুলো
ছিন্নভিন্ন হয়ে অপেক্ষারত
তারই জন্য !!

জানেনা সে কোন ছলে ,
বাঁধবে প্রিয়কে…….
তার সুখের বেদনা সয়ে,
মুখে হাসির পরশ নিয়ে, সে তখন
অশ্রুসাগরে ভাসছে ।
কটা পুরুষ, নারীর এহেন
ব্যাকুল আবেগকে বরণ করে !
ঐ নারীটির অন্তরের সন্ধান
পেতে গেলে,
তাকেও যে তার মতো
করে ভাবতে হবে,
হতে হবে সংবেদনশীল ,
কিন্ত তার প্রিয় হারবে কেন?
সে যে পুরুষ…..তাই তার
কথার বিরাট দাম!!
ভালোবাসা চিরন্তন… তাই
তার প্রিয়কে দৈবনিয়মে
মায়ার মোহোস্রোতে ভেসে
মিলনসুখে হারাতেই হবে।

পছন্দের আরো পোস্ট