বাকৃবিতে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা মূলক র‌্যালি

বাকৃবি প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ডেঙ্গু প্রতিরোধে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি, এডিস মশা নিধন ও পরিচ্ছন্নতা অভিযান বিষয়ে একটি সচেতনতামূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন মিলনায়তনে ওই সেমিনারের আয়োজন করে বাকৃবির ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা বিষয়ক কমিটি।

এর আগে সকালে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা মূলক র‌্যালির আয়োজন করা হয়। র‌্যালিটি বিশ^বিদ্যালয়ের হেলিপ্যাড থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পদক্ষিণ করে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন মিলনায়তনে এসে শেষ হয়। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ এবং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা অংশ নেন।

সেমিনারে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা এবং দিকনির্দেশনা মূলক আলোচনা করেন বিশ^বিদ্যালয়ের কীটতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মহির উদ্দীন এবং প্যারাসাইটোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. তাহ্সিন ফারজানা। সেমিনারে বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্রবিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. মো. ছোলায়মান আলী ফকিরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. জসিমউদ্দিন খান, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. আজহারুল হক।

সেমিনারে উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান বলেন, বাংলাদেশে ডেঙ্গু ভয়াবহ কমাতে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সকলকেই সচেতন হতে হবে। বিশ^বিদ্যালয়ে আমরা বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ হাতে নিয়েছি। বিশ^বিদ্যালয়ের ড্রেন, নর্দমা, আবাসিক হল গুলোতে মশা নিধনের জন্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

এডিস মশার লার্ভি ধ্বংস করতে মসকিউটো ফিশ অবমুক্ত করা হয়েছে। দেশে এবং বিদেশে ডেঙ্গু প্রতিরোধে এবং মশার প্রজনন ক্ষমতা নষ্ট করার জন্য গবেষণা কার্যক্রম চলছে। পরবর্তীতে মশা নিয়ন্ত্রণের জন্য আমাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাব এবং ডেঙ্গু, চিকনগুনিয়া সহ মশাবাহিত রোগ থেকে আমরা রক্ষা পেতে পারব।

পছন্দের আরো পোস্ট