কুবিতে বিচারের দাবিতে সাংবাদিক সমিতির অবস্থান; প্রেস ক্লাবের একাত্মতা পোষণ

|| কুবি প্রতিনিধি ||

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) কর্মরত সাংবাদিকদের গুলি করে হত্যার হুমকি ও লাঞ্ছনাকারী ছাত্রলীগ নেতাদের দ্রুত বিচারের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সদস্যরা। বুধবার (২৪ জুলাই) সকাল ১১ টা থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যের পাদদেশে এ অবস্থান কর্মসূচী শুরু করে তারা।

সাংবাদিক সমিতির এ অবস্থান কর্মসূচী ও দাবির সাথে সর্বাত্মকভাবে একাত্মতা পোষণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাব।

অবস্থান কর্মসূচীতে সাংবাদিক সমিতির সদস্যরা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড নিয়ে হুমকিদাতা শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শোয়েব হাসান হিমেল এবং সহ-সভাপতি মোঃ রাইহান ওরফে জিসানকে শীঘ্রই ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনে বিচারের দাবি জানায়।

এদিকে বুধবার দুপুর ১ টার দিকে শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অবস্থান কর্মসূচিতে এসে সমঝোতা ও বসে সমাধান করতে চাইলে সাংবাদিক সমিতির নেতাকর্মীদের সাথে তাদের বেশ কিছুক্ষণ বাকবিতণ্ডা হয়।

কর্মসূচীতে অবস্থান করা সাংবাদিক সমিতির সভাপতি জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘সাংবাদিকদের হত্যার হুমকি নিয়ে আমরা চরম উদ্বিগ্ন। প্রশাসন এ বিষয়টাকে গুরুত্ব না দিয়ে বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু করছে।’

অবস্থান কর্মসূচি ও দাবির সাথে একাত্মতা পোষণ করে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি শতাব্দী জুবায়ের জানান, ‘ছাত্রনেতাদের এমন হুমকি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতার পরিবেশ নষ্ট করছে। এ ঘটনার বিচারের দাবিতে এবং ক্যাম্পাসে সাংবাদিকতার সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখার স্বার্থে আমরা সাংবাদিক সমিতির কর্মসূচিতে একাত্মতা পোষণ করছি।’

এদিকে সাংবাদিকদের হুমকিদাতা শাখা ছাত্রলীগের ঐ দুই নেতাকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। বুধবার (২৪ জুলাই) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. আবু তাহের স্বাক্ষরিত আলাদা দুই নোটিশে তাদের এই অছাত্রসুলভ আচরণের বিষয়ে কেনও ব্যবস্থা নেয়া হবে না তার কারণ তিন কার্য দিবসের মধ্যে জানাতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৯ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় শাখা ছাত্রলীগের দুপক্ষের সংঘর্ষের সংবাদ সংগ্রহ করতে যান কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদকর্মীরা। এসময় তাদের উদ্দেশ্যে করে অশ্রাব্য ভাষা ব্যবহার করে শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শোয়েব হাসান হিমেল এবং সহ-সভাপতি মোঃ রাইহান ওরফে জিসান। উভয়পক্ষের বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক তানভীর সাবিককে গুলি করে হত্যার হুমকি এবং আবু বকর রায়হানকে মারতে আসে ছাত্রলীগের নেতারা।

 

প্রতিনিধি/এমকে/কুবি

পছন্দের আরো পোস্ট