আইপিডিসি ইয়াং প্রফেশনাল সামিট

ঢাবি প্রতিনিধিঃ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম স্বনামধন্য সংগঠন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যারিয়ার ক্লাব শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রায়ই বিভিন্ন সেমিনার, ওয়ার্কশপ, জব ফেয়ার ইত্যাদি আয়োজন করে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় ১লা এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যারিয়ার ক্লাব ও লাইট হাউস বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল “ডিইউসিসি প্রেজেন্টস – আইপিডিসি ইয়াং প্রফেশনাল সামিট ২০১৯”।অনুষ্ঠানটির সহযোগিতায়  ছিল আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড, উর্মি গ্রুপ, কোয়ালিটি ইন্টিগ্রেটেড এগ্রো লিমিটেড এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ।

সামিটটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত  হয়েছে আজ সকাল ১০ ঘটিকায় নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে যেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোঃ আতিউর রহমান, প্রাক্তন গভর্নর, বাংলাদেশ ব্যাংক এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. শিবলী রুবায়াতুল ইসলাম, ডিন, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ এবং প্রফেসর সৌমিত্র শেখর, বাংলা বিভাগ, উপদেষ্টা,  ছাত্র- শিক্ষক কেন্দ্র, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যারিয়ার ক্লাবের মডারেটর মোঃ রাশেদুর রহমান, সহকারি অধ্যাপক, ডিপার্টমেন্ট অব অরগানাইজেশনাল স্ট্র্যাটেজি ও লিডারশীপ, ব্যাবসায় শিক্ষা অনুষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও সহ-সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নাজমুস আহমেদ আলবাব, সিইও, লাইট হাউস বাংলাদেশ।

সামিটটি ৪টি কি-নোট সেশন,২টি প্লেনারি সেশন ও ২টি ডায়ালগ ডিস্কাশনে বিভক্ত ছিল। কি-নোট সেশন গুলো হলো – “চেঞ্জ মেকার- লিডারশিপ, ভ্যালুস এন্ড সিএসআর”, “দি প্রফেশনাল”, “পারসনাল ব্র্যান্ডিং- এটিকুয়েট, ইন্টারপারসনাল স্কিলস” এবং “ফিউচার সিইও- ডিসিশন মেকিং এন্ড অন্ট্রোপ্রেনরশিপ স্কিলস”। কি- নোট সেশনগুলোতে ছিলেন আইপিডিসি ফাইন্যান্সের এমডি ও সিইও মমিনুল ইসলাম; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অফ অর্গানাইজেশন এন্ড লিডারশিপ এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড.  মো. এ মঈন; এম এন্ড এস এর কান্ট্রি ম্যানেজার স্বপ্না ভৌমিক এবং কোয়ালিটি ইন্টিগ্রেটেড এগ্রো লিমিটেড এর এমডি ইন্তেশাম শাহজাহান। মমিনুল ইসলাম বলেন,” যদি ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে চাও তাহলে তোমাকে দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে হবে।”

প্লেনারি সেশন দুটি ছিলো- “চেলেঞ্জেস এহেড- ভিশন, মিশন, স্ট্র্যাটেজি ও এক্সেকিউশন” ও “মিলেনিয়াল- ডিজিটালাইজেশন এন্ড টেকনোলজি”৷ উক্ত সেশনগুলোয় ছিলেন ইউনাইটেড গ্রুপের ডিরেক্টর মালিক তালহা বারি; বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা রেকিট বেনিকিসার এর এইচ আর ডিরেক্টর আফ্রিন হুদা; পুমা এর ব্রাঞ্চ ম্যানেজার মইন হায়দার চৌধুরী; আইপিডিসি ফাইন্যান্সের ডেপুটি এমডি এবং বিজনেস ফাইন্যান্সের প্রধান রিজওয়ান দাউদ শামস; অভিক আলম, কো-ফাউন্ডার, ওয়েবএবল ডিজিটাল; বিকাশের চিফ হিউম্যান রিসোর্স অফিসার ফেরদৌস ইউসুফ; সহজ এর এমডি শেজামি খলিল এবং এলআইসিটির কম্পোনেন্ট টিম লিডার সামি আহমেদ।

ডায়ালগ ডিস্কাশন দুটি ছিলো “পারসোনাল এসেসমেন্ট এন্ড ডিস্ক” ও “কমিউনিকেটর- কমিউনিকেশন স্কিলস, ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স”। সেশনগুলো পরিচালনা করেন কাজী এম আহমেদ, আফরিন হুদা, উর্মি গ্রুপ লিমিটেড এর ডিরেক্টর শামারুখ ফখরুদ্দিন এবং মাহজাবিন ফেরদৌস, এইচ/ও কর্পোরেট কমিউনিকেশন, আইপিডিসি ফাইন্যান্স।

সামিটটিতে অংশগ্রহনকারী ২০০ শিক্ষার্থী লাইট হাউস বাংলাদেশের ৪টি ওয়ার্কশপে অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছে যা তাদের পরবর্তী কর্মজীবনে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

অনুষ্ঠানটি সফল করার লক্ষ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যারিয়ার ক্লাব ও লাইট হাউস বাংলাদেশ সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং করপোরেট- প্রফেশনালদের মধ্যে যোগসূত্র স্থাপন করতে সামিটটি অন্যতম ভূমিকা রেখেছে।

পছন্দের আরো পোস্ট