বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের জন্য

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা একদম দরজায় কড়া নাড়ছে। প্রথম পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ১৪ সেপ্টেম্বর,শুক্রবার। এটা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সি ইউনিটের পরীক্ষা,ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ। আশাকরি সবার প্রস্তুতি ভালই হয়েছে।

অনেকের দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তব হবে এই দিনে। এই ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে কিছু নির্দেশনা মেনে চলা প্রয়োজন। ভর্তি পরীক্ষার আগের দিন সন্ধ্যা থেকে থেকে সব পড়াশুনা বন্ধ রাখা ভাল। চান্স যদি হয় এতদিন যা পড়েছেন তাতেই হবে, আর না হলে আজ পড়লেও হবে না। পরীক্ষার হলে কী কী কাগজ নিতে হবে সেসব অবশ্যই আগের দিন গুছিয়ে রাখা উচিত। নতুন কলম না নেয়াই ভাল।কারণ অনেক সময় ঠিকমত কালি দেয় না।

যে কলমে কালি বেশি দেয় সে কলম নেয়া ভাল, তাহলে ওএমআর(OMR) শিট ভরাট করতে সময় কম লাগবে। যতটা সম্ভব টেনশন কমায় রাখতে হবে। নরমাল থাকার চেষ্টা করতে হবে। অনেকে অনেক রকম ভয়-ভীতিমূলক কথা বার্তা বলে, সেসব কথায় কান না দেয়াই উত্তম।আগে অনেক পরীক্ষা দিয়ে আসছো সবাই সেগুলা থেকে এটা নতুন কিছু না।এজন্য এটা নিয়ে চিন্তার কিছু নেই।

গুরুত্বপূর্ণ পড়াশুনা পরীক্ষার আগের দিন সন্ধ্যার আগেই শেষ করে রাখা শ্রেয়।সন্ধ্যা থেকে একদম পড়াশুনা মুক্ত থাকা উচিত। সন্ধ্যার পরে দিয়ে একটু বিনোদনে থাকা ভাল।গান শুনা যেতে পারে বা মুভি দেখা যেতে পারে, যার যেটা ভাল লাগে। রাতে অবশ্যই আগে আগে ঘুমায় যেতে হবে।যাতে আগে আগে ঘুম থেকে ওঠা যায়।সকালে বাসা থেকে একটু আগে বের হতে হবে যেন ১ ঘন্টা আগে দিয়ে পৌছানো যায়।

Post MIddle

অনেকে আছে পরীক্ষা হলে ঢোকার সময়ও হাতে শিট থাকে; আগেই বলছি এত পড়াশুনার দরকার নাই, অনেক হয়েছে। পরীক্ষার হলে ঢোকার পর কারো সাথে তেমন কথা না বলাই উত্তম। চুপচাপ শ্রেয়। রোল নং,নিজের নাম,বাবার নাম এসব পূরণ করার সময় সতর্ক থাকতে হবে।

অনেকে আছেন নিজের নামের যায়গায় বাবার নাম আর বাবার নামের জায়গায় নিজের নাম লিখেন।এজন্য এগুলায় একটু বেশি সতর্ক থাকতে হবে।ওএমআর(OMR) শিট পূরণ করার পরে প্রশ্নপত্র খোলা উচিত,তাহলে ওএমআর(OMR) শিটে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা একদম কম থাকবে।

দুই একটা আনকমন প্রশ্ন দেখলেই ঘাবড়ায় যাওয়া যাবে না। সব প্রশ্ন কেউ পারবে না।আর চান্স পাওয়ার জন্য সব প্রশ্ন পারাও লাগে না।এজন্য যেগুলা পারা যায় সেসব দেখেশুনে উত্তর করাই শ্রেয়।আর হ্যাঁ অবশ্যই সময় এর ব্যাপারটা মাথায় রাখতে হবে। আর একচেটিয়াভাবে সব দাগানে যাবে না।কারণ নেগেটিভ মার্ক আছে।তবে যেসব মোটামুটি সিওর মনে হয় সেসব কিছু উত্তর করা যেতে পারে।

“ইংরেজি” তে পাশ করা নিয়ে অনেকের বেশি চিন্তা থাকে।এজন্য যাদের পাশ মার্ক নিশ্চিত হয়ে গেছে তাদের মোটেই আন্দাজে উত্তর করা উচিত হবে না। অনেক শুভ কামনা সবার জন্য।

ওবাইদুর রহমান ফারাবী, ইংরেজি বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।

পছন্দের আরো পোস্ট