ড্যাফোডিলে সোস্যাল বিজনেস ক্রিয়েশন প্রতিযোগিতার আঞ্চলিকপর্ব অনুষ্ঠিত

সামাজিক ব্যবসার বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা সোস্যাল বিজনেন্স ক্রিয়েশন (এসবিসি)- এর আঞ্চলিক (বাংলাদেশ চাপ্টার) পর্বের চূড়ান্ত আসর গত মঙ্গবার (৩১ জুলাই) ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে টিম মেডিশিওর, প্রথম রানারআপ হয়েছে টিম সিংক এবং দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছে টিম মাদার কেয়ার। বাংলাদেশে নিযুক্ত কানাডার হাইকমিশনার বেনোইত প্রিফনতাইনে চূড়ান্ত পর্বেও অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউনুস সেন্টারের নির্বাহী পরিচালক লামিয়া মোর্শেদ। এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মো. গবুর খান, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, বাণিজ্য ও ঊদ্যেক্তা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মাসুম ইকবাল, ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ড. তৌহিদ ভুঁইয়া প্রমুখ। সোস্যাল বিজন্সে ক্রিয়েশন (এসবিসি) প্রতিযোগতার মূলঅ ায়োজক এইচইসি মন্ট্রিল কানাডা। এবছর বাংলাদেশে প্রতিযোগিতাটির আঞ্চলিক পর্ব ‘বাংলাদেশ চ্যাপ্টার’এর আয়োজন কওে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ব্যাবসায় ও উদ্যোক্তা অনুষদ। এতে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে সোস্যাল বিজনেস স্টুডেন্টস ফোরাম (এসবিএসএফ)।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেনোইত প্রিফনতাইনে বলেন, তোমরা একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের সহশিক্ষা কার্যক্রমের সঙ্গে জড়িত রয়েছ। এজন্য তোমাদেরকে অভিনন্দন জানাই।

আঞ্চলিক পর্বের চূড়ান্ত আসরে সাতটি দল অংশগ্রহণ করে। তার মধ্যে তিনটি দল পুরষ্কার জিতে নেয়। চ্যাম্পিয়ন দল পুরস্কার হিসেবে পেয়েছে ১৫ হাজার টাকা, প্রথম রানারআপ পেয়েছে ১০ হাজার টাকা এবং দ্বিতীয় রানারআপ দল পেয়েছে ৫ হাজারটাকা। এছাড়া চ্যাম্পিয়ন দল কানাডা রমন্ট্রিলে অনুষ্ঠিতব্য এসবিসি’র বৈশ্বিক চূড়ান্তপর্বে অংশগ্রহণের জন্য ৭০ হাজার টাকার বিমানভাড়াও পাবে।

পছন্দের আরো পোস্ট