চবি উপাচার্য সকাশে চায়না প্রতিনিধি দল

বাংলাদেশ সরকার এবং চীন সরকারের যৌথ উদ্যোগে আগামী নভেম্বর মাসে ঢাকা ও চট্টগ্রামে তিন সপ্তাহ ব্যাপি অনুষ্ঠিতব্য Maritime Spatial Planning এর উপর একটি জাতীয় ট্রেনিং কোর্স পরিচালনার ব্যাপারে সহযোগিতার জন্য চীন সরকারের ফুজিয়ান ইনস্টিটিউট অব ওসানোগ্রাফী-এর কোর্স কো-অর্ডিনেটর Ms Wang Shanshan I Mr. Huang Zurong গত (১০ জুলাই ২০১৮) মঙ্গলবার  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীর সাথে তাঁর অফিস কক্ষে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন।

এ সময় বাংলাদেশ সরকারের ব্লু ইকোনোমি সেলের প্রধান অশোক কুমার দেবনাথ, বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ক্যাপ্টেন কুতুবউদ্দীন, চ.বি. ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস এন্ড ফিশারিজ-এর পরিচালক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান চৌধুরী ও চ.বি. সংগীত বিভাগের সভাপতি সুকান্ত ভট্টাচার্য উপস্থিত ছিলেন।

উপাচার্য সম্মানিত অতিথিবৃন্দকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় অনিন্দ্য সুন্দর সবুজ ক্যাম্পাসে স্বাগত ও উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, বিভাগ, হল, ইনস্টিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি সম্মানিত অতিথিবৃন্দের সামনে তুলে ধরেন এবং এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ে আলোকপাত করেন।

প্রসঙ্গক্রমে উপাচার্য বলেন, বাংলাদেশের ঘনিষ্ট বন্ধুপ্রতীম দেশ চীন। চীন সরকার এ দেশে শিল্প-বাণিজ্য, গার্মেন্টস, জ্বালানী, অবকাঠামোগত উন্নয়নে বিনিয়োগসহ এ দেশের উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে যে ভূমিকা রেখে চলেছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।

উপাচার্য ভবিষ্যতেও চীন সরকারের এ আন্তরিকপূর্ণ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি সম্মানিত অতিথিবৃন্দকে আগামী নভেম্বর মাসে ঢাকা ও চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় ট্রেনিং কোর্স পরিচালনার ব্যাপারে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস এন্ড ফিশারিজ তথা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন।

সম্মানিত অতিথিবৃন্দ মাননীয় উপাচার্যের আশ্বাসে মুগ্ধ হন এবং এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চ শিক্ষা-গবেষণার চলমান সুষ্ঠু পরিবেশ সম্পর্কে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করেন। পরে অতিথিবৃন্দ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরম সবুজ ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেন।

পছন্দের আরো পোস্ট