এক্স-কম এর সামিট ২০১৮ সম্পন্ন

গত (১৮ মে ২০১৮) আই ট্রিপল ই ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস ব্রাঞ্চ সফলভাবে আয়োজন করেছে “বাংলাদেশ সেকশন আই ট্রিপল ই স্টুডেন্টস ব্রাঞ্চ এক্সিকিউটিভ কমিটির (এক্স-কম) সামিট ২০১৮”। সদস্যদের জন্য আই ট্রিপল ই এমনই একটি আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্ম যেখানে বিশ্বের পরিবর্তনশীল প্রযুক্তির সাথে কম্পিউটিং এবং টেকসই শক্তি, যোগাযোগ ব্যবস্থা, রোবোটিক্স, স্বাস্থ্য সেবা ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়সমূহ সেমিনার, ওয়ার্কশপ ও ট্রেনিং সেশন ইত্যাদির মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। এটি একটি সম্পূর্নরূপে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। এই মিটআপ সামিটে বাংলাদেশের পাবলিক এবং প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৩৬টি স্টুডেন্টস ব্রাঞ্চের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকগণ অংশগ্রহণ করেন।

ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির সেমিনার হলে আয়োজিত সামিটে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন এবং আই ট্রিপল ই ইউ স্টুডেন্টস ব্রাঞ্চের কাউন্সিলর অধ্যাপক ড. মোঃ মাহফুজুর রহমান। ড. শেখ আনোয়ারুল ফাত্তাহ, নমিনেশন এ্যান্ড এ্যাপয়েন্টমেন্ট চেয়ারম্যান, আই ট্রিপল ই বাংলাদেশ সেকশন (বিডিএস); মোঃ ইয়াসির আরাফাত, ভাইস চেয়ারম্যান (এ্যাকটিভিটি), আই ট্রিপল ই বিডিএস;রাকিবুল ইসলাম চৌধুরী, হিউমিনিটিরিয়ান এ্যাকটিভিটি কোঅর্ডিনেটর, আই ট্রিপল ই, বিডিএস; রাইহান উর রশিদ, পাবলিচিটি কোঅর্ডিনেটর, আই ট্রিপল ই বিডিএস; শামস শাদ ইসলাম খান, স্টুডেন্ট এ্যাকটিভিটি কোঅর্ডিনেটর, আই ট্রিপল ই বিডিএস এবং অভিজিৎ বিশ্বাস, এসএসআর, আই ট্রিপল ই বিডিএস; মোহাম্মদ জাকারিয়া হায়দার, সচিব, আই ট্রিপল ই বিডিএস; মোঃ রোমায়েল হক, কোষাধ্যক্ষ, আই ট্রিপল ই বিডিএস; ড. এম. তানসের আলী, প্রফেশনাল এ্যাকটিভিটি কোঅর্ডিনেটর, আই ট্রিপল ই বিডিএস; ড. সিলিয়া শাহনাজ, চেয়ারম্যান, আই ট্রিপল ই বিডিএস “আই ট্রিপল ই পুরস্কার মনোনায়ন” এবং “আই ট্রিপল ই বাংলাদেশের ২০১৮ কর্মপরিকল্পনা” উপস্থাপন করেন।

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের আই ট্রিপল ই ইউ স্টুডেন্টস ব্রাঞ্চের শিক্ষার্থীরা তাদের কর্মকান্ড স্লাইড এবং পোস্টার প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে উপস্থাপন করেন। ইঞ্জিনিয়ার মোঃ খন্দকার মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, চেয়ারম্যান, বোর্ড অব ট্রাষ্টি, ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি (ই ইউ); অধ্যাপক ড. মোঃ নুরুল ইসলাম, উপাচার্য, ই ইউ; অধ্যাপক ড. মোঃ আমিনুল হক, প্রকৌশল ও প্রযুুক্তি অনুষদের উপদেষ্টা সামিটে তাদের বক্তব্য প্রদান করেন।

এবারের সামিটে স্টুডেন্ট সদস্যদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠানটি একটি মিলন মেলায় পরিনত হয়। পুরস্কার বিতরণীর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মম্মেলনটি শেষ হয়।

পছন্দের আরো পোস্ট