প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ছাত্রলীগের আনন্দ র‌্যালী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৮তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আনন্দ র‌্যালী করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শাখা ছাত্রলীগ।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্ত্বর থেকে র‌্যালীটি বের হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রধান ফটকের সামনে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়। এতে প্রায় দেড় শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে জাবি ছাত্রলীগ সভাপতি মো. জুয়েল রানা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমেই মূলত বাংলাদেশে গণতন্ত্র পূণরুদ্ধার হয়েছিলো। বর্তমানে তার হাত ধরেই উন্নয়নের পথে হাটছে সারাদেশ। এসময় সকল সংকটময় পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর আস্থা রাখারও আহ্বান জানান তিনি।

সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে শাখা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মামুনুর রশিদ, মাজেদ সীমান্ত, সাংগঠনিক সম্পাদক অভিষেক মন্ডল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বঙ্গবন্ধু হত্যাকা-ের পর দীর্ঘ প্রবাস জীবন কাটিয়ে ১৯৮১ সালের এই দিনে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ দেশে আসেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের অধিকাংশ সদস্যকে হত্যা করা হলেও দেশের বাইরে থাকায় বেঁচে যান তাঁর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা।

দেশের বাইরে অবস্থানকালে ১৯৮১ সালের ১৪, ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি তিন দিনব্যাপী আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিলে শেখ হাসিনা দলের সভানেত্রী নির্বাচিত হন। পরে ভারত থেকে তিনি দেশে ফিরে আসেন। দিনটিকে আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস হিসেবে পালন করে।

পছন্দের আরো পোস্ট