আইইউবিতে বাংলাদেশে জবাবদিহিতা: বিষয় ও বিতর্ক শীর্ষক সম্মেলন

‘বাংলাদেশে জবাবদিহিতা: বিষয় ও বিতর্ক’ শীর্ষক দিনব্যাপী এক সম্মেলন আজ (২৯ মার্চ ২০১৮)  বৃহস্পতিবার ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি)-র বসুন্ধরা, ঢাকা ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয়। আইইউবি-র স্কুল অফ লিবারেল আর্টস এন্ড সোশাল সায়েন্স এর গ্লোবাল স্টাডিজ এ্যান্ড গর্ভণেন্স প্রোগ্রাম এই সম্মেলনের আয়োজন করে।

এই সম্মেলন আয়োজনের উদ্দেশ্য ছিল মূলত: দু’টি। প্রথমত: বাংলাদেশের বিভিন্ন পর্যায় ও পরিস্থিতিতে জবাবদিহিতার ক্ষেত্র চিহ্নিতকরণ এবং দ্বিতীয়ত: সম্মেলনে প্রাপ্ত সুপারিশসমূহ বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষার মান উন্নয়ন, সুশাসন, ব্যক্তিগত দায়বদ্ধতা, মানবতা, সততা, আর্থ-সামাজিক ও পরিবেশগত উন্নয়ন, গণমাধ্যমের কার্যকারীতা এবং স্বাস্থ্যখাতে কাজে লাগানো।

দিনের শুরুতে প্রধান অতিথি হিসাবে সম্মেলনের কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি)-র উপাচার্য অধ্যাপক এম ওমর রহমান। সম্মেলনের উদ্দেশ্য তুলে ধরে বিষয়ভিত্তিক উপস্থাপনা রাখেন আইইউবি-র গ্লোবাল স্টাডিজ এ্যান্ড গর্ভণেস প্রোগ্রামের প্রধান অধ্যাপক ইমতিয়াজ এ হোসেন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আইইউবি-র উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মিলান পাগন এবং লিবারেল আর্টস এন্ড সোশাল সায়েন্স ও বিজনেস অনুষদের ডীনগণ।
দিনব্যাপী এই সম্মেলনে ছিল ১১টি কার্যকরী ও একটি মূল অধিবেশন। সর্বমোট অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন ৩৪টি প্রতিপাদ্য বিষয় সম্মেলনে উপস্থাপিত হয় যেগুলি উপস্থাপন করেন দেশের খ্যাতনামা মিক্ষাবিদ, গবেষক, নীতিনির্দারক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংবাদিক ও গণমাধ্যম ব্যাক্তিত্ব এবং পেশাভিত্তিক বিশেষজ্ঞগণ।

সম্মেলনে অংশগ্রহন করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রাক্তন গভর্ণর ড.আতিউর রহমান, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের প্রাক্তন চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান, ফার-ইস্ট ইন্টার ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ড. নাজমুল করিম চৌধুরী, নর্দান ইউনিভার্সিটির র উপাচার্য ড. আনোয়ার হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্ন্তজাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক আমেনা মোহসিন, প্রাক্তন নির্বাচন কমিশনার ব্রি.জে. (অব.) এম সাখাওয়াত হোসেন, সেন্টার ফর গর্ভণেস স্টাডিজের চেয়ারম্যান ড. আতাউর রহমান, ইউনিভার্সিটি অফ লিবারেল আর্টস-এর অধ্যাপক সালিমুল্লাহ খান, ডেফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস অনুষদের ডীন ড. ফরিদ সোবহানী এবং সরকারের ফাইন্যান্স মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ শাহজাহান।

পছন্দের আরো পোস্ট