৫ম ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি গণিত উৎসব ২০১৮

মেধার উৎকর্ষতা যাচাই ও গাণিতিক দক্ষতা বিকাশের লক্ষ্যে ‘এসো মিলি গণিত উৎসবে’ এই শ্লোগান নিয়ে কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ, ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির আয়োজনে গত ১৬ মার্চ ২০১৮ অনুষ্ঠিত হল “৫ম ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি গণিত উৎসব” এবং “বাংলাদেশ ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াড ২০১৮”।

সারা দেশের উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজিত এ উৎসবের মূল আকর্ষণ ছিল গণিত অলিম্পিয়াড। দেশের বিভিন্ন জেলার কলেজের শিক্ষার্থীরা এতে অংশ নেয়। সকাল ১০টায় শুরু হয় মূল প্রতিযোগিতা। ২ ঘন্টাব্যাপী এ প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীরা ২০টি গাণিতিক সমস্যা সমাধান করে। দুপুরে মধ্যাহ্ন বিরতির পরে ছিল স্পট কুইজ, মুক্ত আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। উপস্থিত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে শেষ হয় জমজমাট এ পর্ব। এরপর শুরু হয় সমাপণী অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ কৌশল বিভাগের প্রধান ও স্বনামধন্য লেখক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের সম্মানিত চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ এবং বাংলাদেশ গণিত সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য অধ্যাপক ড. শেখ সোহরাব উদ্দিন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ নুরুল ইসলাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিডিও বার্তায় মুহাম্মদ জাফর ইকবাল অনুষ্ঠানে সশরীরে উপস্থিত হতে না পারার জন্য সবার কাছে আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং আধুনিক বিশ্বে বিজ্ঞান ও গণিতের গুরুত্ব তুলে ধরেন। তিনি বলেন “শিক্ষার্থীরা অভিভাবকসহ খাবার কিংবা কনসার্টের জন্য নয়, গণিত অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণের জন্য বহু কষ্টে সামনে বসে আসেন -এই দৃশ্যটি আমার কাছে পৃথিবীর সুন্দরতম দৃশ্যগুলোর মধ্যে অন্যতম”। ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ মেধার বিকাশে অলিম্পিয়াড আয়োজন ও এতে অংশগ্রহণের গুরুত্ব তুলে ধরেন। তিনি ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিকে এই সুন্দর গণিতের উৎসব আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানের সভাপতি ও ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ড. মোঃ নুরুল ইসলাম ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে আয়োজিত এ উৎসবের তাৎপর্য তুলে ধরেন এবং অংশগ্রহণকারীদের অভিনন্দন জানান। উৎসবের আহবায়ক ছিলেন প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন ড. মাহফুজুর রহমান।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে গণিত অলিম্পিয়াডে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন সুভা নায়ের পুস্পিতা, ভিকারুন্নেছা স্কুল এন্ড কলেজ। নটরডেম কলেজের সাদ বিন কুদ্দুস প্রথম রানারআপ এবং মুস্তাকিম হোসেন জীম দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন। এছাড়া সম্মানসূচক পুরস্কার অর্জন করে ৭ বিজয়ী। বাংলাদেশ ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াড ২০১৮ এ চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন তাসমিম রেজা, এসওএস হার্মান মেইনার কলেজ , প্রথম রানারআপ হয়েছেন রোহান হাবিব, পিভোট পয়েন্ট এবং দ্বিতীয় রানারআপ সাঈদ রুবাব রেদোয়ান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল এন্ড কলেজ।

উৎসব আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করে ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি কম্পিউটিং ক্লাব। আয়োজনে ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটির সহযোগী ছিল তমা ট্যাক্সি ও রয়েল বাফেট। গণিত উৎসবের মিডিয়া পার্টনার ছিল দৈনিক দি ইন্ডিপেডেন্ট, দৈনিক যুগান্তর, এসএটিভি, ডেডিও ক্যাপিটাল এফএম।

পছন্দের আরো পোস্ট