ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭তম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত

সমাজের একটি বৃহৎ অংশ উচ্চশিক্ষা থেকে বঞ্চিত, তাদের মাঝে উচ্চশিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিয়ে জ্ঞানভিত্তিক সমাজ ও দেশপ্রেমিক মানুষ গড়তে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তা ও জনদরদী মানুষদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যারা গড়ে তুলছেন তাদের লক্ষ্য হতে হবে সমাজসেবা। শিক্ষাকে পণ্য করে মুনাফা অর্জনের জন্য নয়। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর আফতাবনগরে ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় ক্যম্পাসে এর ১৭তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর, মহামান্য রাষ্ট্রপতির প্রতিনিধি হিসেবে অংশ নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইনের সকল শর্ত পূরণ করে ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় স্থায়ী সনদ অর্জন করায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দনও জানান তিনি। এবারের সমাবর্তনে আন্ডার গ্রাজুয়েট ও গ্রাজুয়েট প্রোগ্রামের ১৮৪০ জন শিক্ষার্থীকে সনদ দেয়া হয়। এছাড়া অনন্য মেধাবী তিনজন শিক্ষার্থীকে স্বর্ণ পদক পরিয়ে দেন শিক্ষামন্ত্রী।

সমাবর্তন বক্তা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরিটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান বলেন, বর্তমানে সারাবিশ্বে মানবিক মূল্যবোধের অবনতি ঘটছে। তাই তরুনদের একাডেমিক ও পেশাগত অর্জনের বাইরেও সহিষ্ণু সমাজ ব্যবস্থা এবং দেশ গঠনের জন্য দায়িত্বশীল মানুষ হতে হবে।

Post MIddle

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ইস্ট ওয়েস্ট ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম এম শহিদুল হাসান। তাঁরা বলেন, দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে ভ’মিকা রাখতে তরুনদের দেশপ্রেমিক এবং ভিশনারি উদ্যোক্তা হতে হবে। সেইসাথে গড়ে তুলতে হবে দারিদ্রমুক্ত, সন্ত্রাসহীন, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যগণ, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ, বিভিন্ন অনুষদের ডীনবৃন্দ, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারপার্সনগণ, শিক্ষকবৃন্দ, কর্মকর্তা- কর্মচারী, গ্রাজুয়েট ও তাদের অভিভাবকরা অংশ নেন। শিক্ষা জীবনের শেষে যথাসময়ে সনদ হাতে পাওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন শিক্ষার্থীরা।

//স

পছন্দের আরো পোস্ট