সবাই কী আর শিমুল হয়?

শিমুলের অনেক রাগ, কাঁটায় ভর্তি! এতো রাগ তবু শিমুল খুব কাজের। ও’র ফলে তুলতুলে বালিশ হয়। চৈত্র বা বৈশাখ মাসে ওর সব রাগ ফুল হয়ে যায়..সবাই কী আর শিমুল হয়? কেউ কেউ তো ধুতুরা ফুল ও হয়! হয়তো কেউ আদর করে ওর সুন্দর একটা নাম দেয়: নললতা। কখনো সখনো শহুরে বনেদি বাড়িতে থাকে নললতা। ও’র গায়ে অনেক ঝাঁজ! পাতার মেজাজ শ্রুতিকটু।

আর নললতার ঘ্রাণ?
খুশি হবার কিচ্ছু নেই; খুবই বেরসিক। এদিকে আবার বজ্জাত নললতা শিকড়ে নাকি লুকিয়ে রাখে ট্যানিন। যা সর্পদংশনে দারুণ উপকারী! নললতা ফুলে বিমোহিত হবার আগে জেনে রাখা ভালো ওর ফুলে বিষ থাকে। ভুল করে অধিক খেয়ে ফেললে মস্তিষ্কের বিকৃতি এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে! তবে আশার কথা এই; পরিমিত ব্যবহারে ও’ কিন্তু মানসিক ও স্নায়ুবিক রোগে ভীষণ উপকারী।

পরিমিত ব্যবহার কিংবা পরিমিতি বোধ দিব্যি ঝরঝরে একটা বিষয়। কিন্তু আকর্ষিক ঘরে চলে আসা মানে ফেইসবুকের দেয়ালে আসা সম্পূর্ণ অপরিচিত কিছু মানুষ তা জানে না। ওদের একটা নাম দিয়েছি আমি: আগুন্তুক!

আগুন্তুকরা মাঝে মাঝে আসে। আমার সারাটা দিন, পুরোটা মাস এমনকি সম্পূর্ণ বছর আদ্যপ্রান্ত পড়ে ফেলে এক মিনিট পঁচিশ সেকেন্ডে! তাদের পায়ের ছাপ এতো দ্রুত পড়তে থাকে যে ল্যাপটপের স্ক্রীন বেয়ে কীবোর্ড পর্যন্ত চলে আসে পদচিহ্নের নোটিফিকেশান।

এসব আমার ভালো লাগা উচিত। উচিত না মনে করলে সেটা আমার অনুচিত ভাব! কিন্তু এতো অতি আধুনিক লাইককারীকে আমার কখনোই ভালো লাগেনি। কেননা তাদের স্প্রিট থাকে রকেট গতিতে। আমি সেই গতির রুট ধরতেই হিমশিম!

বুঝতেই পারি না; ওরা কি লাইক’টা আমাকেই দেয় নাকি আমার লেখা কে? দুইটা যে দুই সত্ত্বা। এদের একজনের নির্মানে আমার কোনো হাত নেই, প্রকৃতিই তার রূপকার। অন্যজনে খুব করে আমি আছি। আর যেখানে আমি খুব করে থাকি সেখানে হুট করে অর্বাচীনের সস্তা আগমন সত্য-সত্যই আমার ভালো লাগে না।

আসলে দোষটা আমারই। অতি আধুনিক যুগে বসে আমি একটু একটু করে জানার আশা করি, ফেইসবুক নামক মুভির হাজারটা চরিত্রের। ফেইসবুক বুক না। বুকের উপর রেখে পড়তে পড়তে স্বচ্ছন্দে ঘুমালাম। ঘুম শেষে বুক’টা বুকসেলফে সাজালাম। ইচ্ছে হলে আরেকদিন হাতে তুলে নিলাম। মনে হলো তো..ভালো লাগা পৃষ্ঠার কোনা মুচড়ে রাখলাম। কিংবা বইয়ের পাতার মাঝ বরাবর ময়ূরপুচ্ছ অথবা কাগজের পক্ষী জিইয়ে রাখলাম।

আসলে স্রোত জিনিসটা সবসময় ভালো না। স্রোতে আসা পছন্দকারী ভাটার টানেই হারিয়ে যায়। তাই বলি কী, শিমুল বলি আর ধতুরাই বলি এরা ফুলের বংশ হলেও আবেদন কিন্তু ভিন্ন। নিজ নিজ ক্ষেত্রে ওরা নিজস্ব। স্বকীয় তাদের ভালো লাগা, মন্দ লাগা।

জাহান রিমা।ফ্লোরিডা

পছন্দের আরো পোস্ট