চবিতে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের আলোচনা সভা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে আজ  (১৪ ডিসেম্বর ২০১৭) বৃহস্পতিবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতি সৌধে পুস্পমাল্য অর্পণ করে দেশ ও জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী ও মাননীয় উপ-উপাচার্য বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার।

পরে উপাচার্য ও উপ-উপাচার্য চ.বি. বঙ্গবন্ধু চত্বরে মহাকালের মহানায়ক স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের পর শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতি সৌধে পুস্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চ.বি. শিক্ষক সমিতি, অনষদসমূহের ডিনবৃন্দ, হলসমূহের প্রভোস্টবৃন্দ, সভাপতি-পরিচালক ফোরাম, অফিসার সমিতি, চ.বি. ক্লাব (ক্যাম্পাস ও শহর), সমন্বয় কর্মকর্তা বিএনসিসি, চ.বি. ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজ, কর্মচারি সমিতি, কর্মচারি ইউনিয়ন, সাংবাদিক সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ সহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসমূহ।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো ব্যাজ ধারণ করে শহীদ মিনার থেকে শোক র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয় এবং শোক র‌্যালি শেষে সকাল ৯ টায় বঙ্গবন্ধু চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভাষণ দেন উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন মাননীয় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার।

এ ছাড়াও আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী, শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মিহির কুমার রায় ও সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মুয়াজ্জম হোসেন, সিনেট সদস্য প্রফেসর এ বি এম আবু নোমান, সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. ফরিদ উদ্দিন আহামদ, সোহরাওয়ার্দী হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. মোহাম্মদ বশির আহাম্মদ, হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. এ এফ এম আওরঙ্গজেব, অফিসার সমিতির সাধারণ সম্পাদক জনাব রশিদুল হায়দার জাবেদ, চ.বি. ক্লাব (ক্যাম্পাস) এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. মো. রাশেদ-উন-নবী, চ.বি. ক্লাব (শহর) সভাপতি প্রফেসর ড. রণজিত কুমার চৌধুরী, কর্মচারী সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জনাব ওমর ফারুক ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি জনাব জোস মোহাম্মদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ডেপুটি রেজিস্ট্রার (তথ্য) জনাব মো. ফরহাদ হোসেন খান। অনুষ্ঠানে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের সম্মানে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এছাড়া অনুষ্ঠান শুরুতে পবিত্র কোরআন, পবিত্র গীতা, পবিত্র ত্রিপিটক ও পবিত্র বাইবেল থেকে পাঠ করা হয়।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন উপলক্ষে কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত এবং কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। ফজরের নামাজের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল মসজিদে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত এবং অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের স্ব স্ব উপাসনালয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মার সদগতি কামনা করে প্রার্থনা করা হয়।

পছন্দের আরো পোস্ট