ইবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত পন্থীদের নিরঙ্কুশ জয়

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচন ২০১৮ সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনে বিএনপি জামায়াত পন্থী প্যানেল নিরঙ্কুশ জয় লাভ করেছে। নির্বাচনে সভাপতি হিসেবে হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের প্রফেসর ড. মিজানূর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আল-হাদিস এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ অলী উল্যাহ নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে ১৫টি পদের ১৪টিতে জয়লাভ করেছে বিএনপি-জামায়তপন্থী শিক্ষক প্যানেল।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি নির্বাচন-২০১৮-এ দুটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত শিক্ষকরা বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্যানেল নামে এবং আওয়ামী ও বাম সমর্থিত শিক্ষকরা বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, প্রগতিশীল চেতনায় বিশ্বাসী প্যানেল নামে নির্বাচনে অংশগ্রহন করে।

নির্বাচনে সহ-সভাপতি পদে প্রফেসর ড. শহীদ মোহাম্মদ রেজওয়ান, যুগ্ম-সম্পাদক পদে প্রফেসর ড. এ. এস. এম. আইনুল হক আকন্দ, কোষাধ্যক্ষ পদে প্রফেসর ড. মোঃ আসাদ-উদ-দৌলা (বুলবুল), সদস্য পদে প্রফেসর ড. মোঃ আবু সিনা, প্রফেসর ড. মোহাঃ তোজাম্মেল হোসেন, প্রফেসর ড. এ.কে. এম মতিনুর রহমান, প্রফেসর ড. মোঃ নজিবুল হক, প্রফেসর ড. নূরুন নাহার, প্রফেসর ড. মোঃ ওবায়দুল ইসলাম, প্রফেসর ড. এ.কে. এম. রাশেদুজ্জামান, প্রফেসর ড. মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, প্রফেসর ড. মোঃ জাহিদুল ইসলাম, নির্বাচিত হয়েছেন।

এছাড়াও আওয়ামী প্যানেল থেকে সদস্য পদে মোঃ আনিচুর রহমান নির্বাচিত হয়েছেন।নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন প্রফেসর ড. কাজী আখতার হোসেন। এছাড়াও সহকারী নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন ড. লুৎফর রহমান ও মোঃ সাজ্জাদুর রহমান টিটু।

বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদ ভবনের ৪২৭ নং কক্ষে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। ভোট গ্রহন শেষে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার প্রফেসর ড. কাজী আখতার হোসেন।

এবছর নির্বাচনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৫২ জন শিক্ষক ভোটারের মধ্যে ২৯২ জন শিক্ষক ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। বৈধ ভোট ২৯০টি ছিল বলে জানা গেছে।

পছন্দের আরো পোস্ট