ইবি কর্মকর্তা সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কর্মকর্তা সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন ২০১৭ সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসস্থ ক্লাবে সকাল ১০টা হতে দুপুর ২টা পর্যন্ত এ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে আওয়ামীপন্থী “বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী” জোহা-মোর্শেদ পরিষদের নিরস্কুশ বিজয় হয়েছে এবং বিএনপি ও জামায়াত পন্থী “মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ও বাংলাদেশী জাতীয়বাদ এবং ইসলামী মুল্যবোধে বিশ্বাসী বাবু-কবির পরিষদের  ব্যাপক ভরাডুবি হয়েছে। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে এই প্রথম আওয়ামীপন্থী কর্মকর্তাদের নিরস্কুশ বিজয় হলো।
এ নির্বাচনে মোট ১৫টি পদের বিপরীতে দুটি প্যানেলে বিভক্ত হয়ে ৩০জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। এর মধ্যে জোহা-মোর্শেদ পরিষদ শুধুমাত্র কোষাধ্যক্ষ পদ ব্যতিত ১৪টি পদেই বিজয়ী হয়। সভাপতি পদে জোহা-মোর্শেদ পরিষদের মোঃ শামছুল ইসলাম (জোহা) ২৭৮ ভোট পেয়ে (১৭১ ভোটের ব্যবধানে) দি¦তীয়বারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী বাবু-কবির পরিষদের মোঃ রুহুল আমীন (বাবু) পেয়েছেন ১০৭ ভোট। সাধারণ সম্পাদক পদে জোহা-মোর্শেদ পরিষদের মীর মোঃ মোর্শেদুর রহমান ২৩৩ ভোট পেয়ে (৮৬ ভোটের ব্যবধানে) নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বাবু-কবির পরিষদের মোঃ কবির হোসেন পেয়েছেন ১৪৭ ভোট। সহ-সভাপতি পদে জোহা-মোর্শেদ পরিষদে মোঃ সাইফুল আলম ২১৫ ভোট এবং এ কে এম শরীফ উদ্দিন ২৩৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ ওহীদুজ্জামান ১৪৮ ভোট এবং মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ১৩৮ ভোট পেয়েছেন।
যুগ্ম-সম্পাদক পদে জোহা-মোর্শেদ পরিষদের মোঃ শাহানুর আলম (কেরামত) ২২০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার  নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ মিজানুর রহমান পেয়েছেন ১৫০ ভোট। কোষাধ্যক্ষ পদে বাবু-কবির পরিষদের একমাত্র মোহাঃ লুৎফর রহমান ১৯১ ভোট  পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জোহা-মোর্শেদ পরিষদের মোহাঃ মওদুদ আহমেদ (পরাগ) ১৮৯ ভোট পেয়ে (২ ভোটের ব্যবধানে) পরাজিত হয়েছেন। প্রচার ও দপ্তর সম্পাদক পদে জোহা-মোর্শেদ পরিষদের-মোঃ আব্দুল আওয়াল ২২৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ আরিফ হোসেন (তুহিন) ১৪৩ ভোট পয়েছেন।  সাংস্কৃতিক, সাহিত্য-পত্রিকা ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে জোহা-মোর্শেদ পরিষদের মোঃ মাসুদুর রহমান ২২৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার  নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এ এস এম ইমাম হাসান পেয়েছেন ১৩৮ ভোট। মহিলা বিষয়ক সম্পাদক পদে জোহা-মোর্শেদ পরিষদের রাজিয়া সুলতানা (ডলি) ২১৯ ভোট পেয়ে নিবাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শাহীনা আক্তার পেয়েছেন ১৪২ ভোট।  নির্বাহী সদস্য পদে জোহা-মোর্শেদ পরিষদেরÑ মু. আতাউর রহমান ২০৪ ভোট, ডাঃ মোঃ রবিউল ইসলাম ২১০ ভোট,  মোঃ সোরওয়ার্দী হোসেন ২১৬ ভোট, মোঃ মোক্তারুল হোসেন ২৩৩ ভোট, মোঃ আহসানুল হক (হাসান)  ২১০ ভোট এবং মোঃ আসাদুজ্জামান (মাখন) ২৩৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বাবু-কবির পরিষদের ডাঃ মোঃ পারভেজ হাসান ১৭৮ ভোট, মোঃ সালাউদ্দিন মোল্লা ১৪৬ ভোট,  মোঃ আব্দুল করিম ১৪৫ ভোট,  মোঃ আব্দুল্লাহ চৌধুরী ১৩২ ভোট, মোঃ জাহিদুল ইসলাম ১৩৪ এবং মোঃ আব্দুল লতিফ ১৪৪ ভোট পেয়ে  পরাজিত হয়েছেন। এ নির্বাচনে ৪০২ জন ভোটারের মধ্যে ৩৯৩ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ ফলাফল ঘোষণা করেন।
এ নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ায় জোহা-মোর্শেদ পরিষদের নব নির্বাচিত সভাপতি মোঃ শামছুল ইসলাম (জোহা) এবং সাধারণ সম্পাদক মীর মোর্শেদুর রহমান সম্মানিত ভোটারদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। সেই সাথে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনসহ নির্বাচনের সাথে সম্পৃক্ত সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

 

//স

 

পছন্দের আরো পোস্ট