সাবেক শিক্ষার্থীর হাতে ঢাবি শিক্ষক লাঞ্ছিতের অভিযোগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পকলার ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. শেখ মনির উদ্দীনকে একই বিভাগের সাবেক দুই শিক্ষার্থী লাঞ্ছিত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল (২৫ অক্টোবর) দুপুরে চারুকলা অনুষদের শিল্পকলার ইতিহাস বিভাগের ২০২ নম্বর রুমে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্তরা হলেন- এম এফ এ ২য় পর্ব ২০১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী পিটব বিশ্বাস ও রাকীবুল হাসান ফরাজী।

ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য  অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী ও চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী শিক্ষক।

লিখিত অভিযোগে ওই শিক্ষক উল্লেখ করেন, পরপর দুটি ক্লাস শেষ করে বুধবার দুপুর একটার দিকে বিভাগের নিজ রুমে প্রবেশ করে ওই শিক্ষক। এ সময় হঠাৎ দুই শিক্ষার্থীও তার রুমে প্রবেশ করে এবং রুমে উপস্থিত পিয়নকে ইশারায় সরে যেতে বলে। এরপর কোনকিছু বুঝে উঠার আগেই সাবেক দুই শিক্ষার্থী ওই শিক্ষককে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং ওই শিক্ষক রুম ত্যাগ করতে চাইলে ধাক্কা দিয়ে টেবিলের ওপর ফেলে দেয়। পরে দৌঁড়ে নিচে নেমে আসে ওই শিক্ষক। ভবনের নিচে শিক্ষার্থীরা থাকায় বেঁচে যায় এবং এ ঘটনায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তিনি।

তবে এ ঘটনা অস্বীকার করে রাকীবুল হাসান ফরাজী বলেন, ওই শিক্ষক ইচ্ছা করেই আমাদের ব্যাচের কয়েকজনের ফল খারাপ করে দিয়েছে। তাই বিষয়টি জানতে দুপুরে উনার কাছে গিয়েছিলাম। ওই শিক্ষকের সঙ্গে কোনো প্রকার খারাপ আচরণ করেনি বলে তিনি দাবি করেন।
অধ্যাপক ড. শেখ মনির উদ্দীন বলেন, এ ধরনের অভিযোগ থাকলে তারা বিভাগে লিখিত অভিযোগ করবে। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে কেন আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করবে সেটা আমার বোধগাম্য নয়।

জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানী বলেন, এ ধরনের কোন অভিযোগ আমার কাছে আসেনি। যদি আসে তাহলে তদন্ত করে সেটার ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পছন্দের আরো পোস্ট